শিক্ষামন্ত্রীর ভাইয়ের বিরুদ্ধে মামলার তারিখ পেছাল

শিক্ষামন্ত্রীর ভাইয়ের বিরুদ্ধে মামলার তারিখ পেছাল

জাতীয়

চাঁদপুরে হাইমচরে মেঘনার দুর্গম চরে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনির বড় ভাইয়ের জমি ক্রয়ের দলিল বাতিলের দাবি নিয়ে জেলা প্রশাসকের দায়ের করা মামলার তারিখ পিছিয়েছে।

মঙ্গলবার দুপুরে চাঁদপুর সদরের জ্যেষ্ঠ সহকারী জজ মোহাম্মদ মহিউদ্দিনের আদালতে এই মামলার প্রতিপক্ষ শিক্ষামন্ত্রীর বড় ভাই ডা. জাওয়াদুর রহিম টিপুসহ ২৫ জনের আইনজীবীরা জেলা প্রশাসকের অভিযোগের জবাব দেন।

এ সময় আইনজীবীদের বক্তব্য শুনে বিচারক আগামী ১২ সেপ্টেম্বর এই মামলার পরবর্তী তারিখের দিন ধার্য করেন। এদিকে জেলা প্রশাসকের পক্ষের আইনজীবী আব্দুর রহমান বলেন, ‘আশা করছি বিষয়টি আদালতের বিবেচনায় নেবেন।

অন্যদিকে বিবাদীপক্ষের আইনজীবী আজহারুল ইসলাম বলেন, ব্যক্তি আক্রোশ হয়ে এবং মিথ্যা ও বানোয়াট অভিযোগ এনে উদ্দেশ্যপ্রণোদিত এই মামলা। এ সময় মামলাটি নিয়ে তিনি আশাবাদী হলেও সরকারপক্ষ তাদের যুক্তিতর্ক তুলে ধরে।

গত ২৮ এপ্রিল হাইমচর উপজেলার মেঘনার পশ্চিমপাড়ে দুর্গম চরে সরকারি খাস দাবি করে ৪৮ একর জমির দলিল বাতিল চেয়ে জেলা প্রশাসক সংশ্লিষ্ট আদালতে একটি আবেদন করেন।

জেলা প্রশাসকের অভিযোগ ছিল সোনাপুর-তাজপুর প্রকাশ্যে বাহেরচরে বিগত ১৯৫০ সালে মেঘনার বুকে চর জেগে ওঠে। যা পরে পয়স্তি জমি হিসেবে চিহ্নিত হয়। এমন পরিস্থিতিতে সরকারের খাসজমি হওয়ায় তা এ, বি ও সি ক্যাটাগরিতে নিয়ে স্থানীয় কৃষকদের মাঝে বন্দোবস্ত দেওয়া হয়।

চরের এসব জমি কতিপয় ব্যক্তির কাছ থেকে ক্রয় করেন ডা. জাওয়াদুর রহিম টিপু। সুতরাং সরকারি জমি উদ্ধারে দলিল বাতিলের আবেদন জানিয়ে আদালতে এই মামলা করেন জেলা প্রশাসক। এতে শিক্ষামন্ত্রীর বড় ভাইসহ ২৫ জনকে প্রতিপক্ষ করা হয়।