যুদ্ধ শুরুর পর প্রথম কিইভের বাইরে জেলেনস্কি

যুদ্ধ শুরুর পর প্রথম কিইভের বাইরে জেলেনস্কি

আন্তর্জাতিক

রাশিয়ার আগ্রাসন শুরুর পর প্রথমবারের মতো রাজধানী কিইভের বাইরে যুদ্ধের ময়দানে গিয়ে সেনাদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন ইউক্রেইনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি।

রোববার ইউক্রেইন প্রেসিডেন্টের কার্যালয় একথা জানিয়েছে। কার্যালয়ের তথ্যানুযায়ী, উত্তরপূর্বের খারকিভ অঞ্চলের লড়াইয়ে সম্মুখসারির সেনাদের অবস্থান দেখেছেন তিনি।

সেখানে জীবন বাজি রেখে লড়াইয়ের জন্য জেলেনস্কি ইউক্রেইনের সেনাদেরকে ধন্যবাদ জানান। খারকিভের ধ্বংসাবশেষও পরিদর্শন করেন তিনি। তাকে ছবিতে বুলেট প্রুফ ভেস্ট পরে থাকতে দেখা গেছে।

ভিডিওতে দেখা গেছে, জেলেনস্কিকে যুদ্ধবিধ্বস্ত অঞ্চল ঘুরিয়ে দেখাচ্ছেন ইউক্রেইনীয় সেনারা।

বিবিসি জানায়, জেলেনস্কির দপ্তর টেলিগ্রামে একটি ভিডিও পোস্ট করেছে। তাতে ক্যাপশনে লেখা রয়েছে, খারকিভ এবং ওই অঞ্চলে ২,২২৯ ঘরবাড়ি ধ্বংস হয়েছে। আমরা অঞ্চলটিকে পুনর্গঠন করব এবং প্রাণ ফিরিয়ে আনব। খারকিভ এবং অন্য সব শহরে-গ্রামে শয়তান হানা দিয়েছিল।”

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেইনে আগ্রাসন শুরু করে রাশিয়া। দেশটির দাবি, তারা ‘বিশেষ সামরিক অভিযান’ চালাচ্ছে। তবে ইউক্রেন ও পশ্চিমারা এই অভিযানকে বিনা উসকানিতে আগ্রাসন আখ্যা দিয়েছে।

যুদ্ধে রাশিয়া ইউক্রেইনের পূর্বাঞ্চলের গুরুত্বপূর্ণ রেল হাব লিমান দখলের দাবি করার পর নিকটবর্তী কৌশলগত গুরুত্বপূর্ণ শহর সেভেরোদোনেৎস্কেও আক্রমণের তীব্রতা বাড়িয়েছে।

রোববার ইউক্রেইন ‍যুদ্ধে প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির নিজ শহর ক্রেয়েই রি- তে সেনাবাহিনীর একটি বিশাল অস্ত্রাগার ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় ধ্বংসের দাবি করেছে রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়।

একইসঙ্গে গত ২৪ ঘন্টায় ৩শ’র বেশি ইউক্রেইনীয় সেনা নিহত হয়েছে বলেও দাবি করেছেন রুশ প্রতিরক্ষামন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ইগর কোনাশেনকভ।