বগুড়ার নন্দীগ্রামে আরবের আজোয়া খেজুর

বগুড়ার নন্দীগ্রামে আরবের আজোয়া খেজুর

রাজশাহী

মরুভূমির ফসল হিসেবে পরিচিত সৌদি আরবের বিখ্যাত আজোয়া জাতের খেজুর চাষের কথা কজন শুনেছি বা দেখেছি? যারা এই খেজুর বাগান দেখতে চায় তাদের বগুড়ার নন্দীগ্রাম উপজেলার প্রত্যান্ত অঞ্চল আমড়া গোহাইল গ্রামের আলহাজ আবু হানিফা কাছে যেতে হবে। তিনি সৌদির আজোয়া জাতের খেজুর চাষ করে সফলতা পেতে শুরু করেছেন।

জানা গেছে, ২০২০ সালে শখের বসে আবু হানিফা ২ বিঘা জমিতে গড়ে তোলেন আজোয়া জাতের খেজুরসহ বিভিন্ন ধরনের ফলের বাগান। একই জমিতে সাথী ফসল হিসেবে রয়েছে আলু বোখারা, ত্বীন ফল, জামরুল, দারুচিনি, লিচু, বরই, পেঁপে, থাই পেয়ারা, লেবু, আম, কমলাসহ বিভিন্ন ফলের গাছ।

এ যেন এক মন মাতানো দৃশ্য, সবুজের বুকে অন্যরকম সবুজ। এক জমিতে বিভিন্ন জাতের ফল চাষ করায় ব্যাপক সাফল্যের স্বপ্ন দেখছেন তিনি।

খেজুরচাষি আবু হানিফা জানান, মদিনা থেকে তিনি আজোয়া জাতের খেজুরের ১৭টি বীজ সংগ্রহ করেন। পরে আজোয়া জাতের বীজ মাটিতে রোপণ করা হয়। আস্তে আস্তে বড় হতে থাকে গাছগুলো। সেই গাছগুলোর মধ্যে একটিতে প্রায় ২০ মাস পর খেজুর ধরেছে। বর্তমানে গাছে যে দুটি থোকায় খেজুর ধরেছে তাতে আনুমানিক ১০ কেজি খেজুর পাওয়া যেতে পারে। তবে পরের বছর এর চেয়ে তিন গুণ বেশি খেজুর পাওয়া যাবে। খেজুরগুলো সব সময় নেট দিয়ে রাখতে হয়। ভবিষ্যতে আরো বড় খেজুর বাগান করার চিন্তা রয়েছে তাঁর।

উপজেলা কৃষি অফিসার মো. আদনান বাবু জানান, নন্দীগ্রাম উপজেলায় এই প্রথম আলহাজ আবু হানিফা সৌদির আজোয়া খেজুর চাষ করছেন। কৃষি অফিসের পক্ষ থেকে তাকে সব রকমের সহযোগিতা ও পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে।