‘ক্যারিয়ারের সবচেয়ে বাজে মুহূর্ত’ সালাহর অনুপ্রেরণা

‘ক্যারিয়ারের সবচেয়ে বাজে মুহূর্ত’ সালাহর অনুপ্রেরণা

খেলা

সতর্কতা ঘণ্টা বাজিয়ে দিলেন লিভারপুল ফরোয়ার্ড মোহাম্মদ সালাহ। শনিবার রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে তাদের চ্যাম্পিয়নস লিগ ফাইনাল। ২০১৮ সালে দুই ইউরোপিয়ান জায়ান্টের ফাইনালে হারের প্রতিশোধ নিতে চোয়ালবদ্ধ প্রতিজ্ঞা করেছেন তিনি।

চার বছর আগের ফাইনালে সালাহ মাঠে ছিলেন ৩০ মিনিটেরও কম সময়। রিয়ালের ডিফেন্ডার সার্জিও রামোসের মারাত্মক ট্যাকলে বাঁ কাঁধের ইনজুরিতে মাঠের বাইরে চলে যেতে হয় তাকে। আকস্মিক ছিটকে যাওয়ায় সেদিন কেঁদেছিলেন মিশরীয় ফরোয়ার্ড।

ওই হারের পর থেকে লিভারপুল দিনকে দিন আরও শক্তিশালী দলে পরিণত হয়েছে। পরের বছর চ্যাম্পিয়নস লিগ ফাইনালে টটেনহ্যাম হটস্পারকে হারিয়ে ইউরোপ সেরা হয় অলরেডরা। এবার পাঁচ বছরে তৃতীয় চ্যাম্পিয়নস লিগ ফাইনালে লিভারপুল এবং ২০১৮ সালে রিয়ালের কাছে হারের শোধ নিতে মরিয়া।

ওই ম্যাচের ইনজুরিকে ক্যারিয়ারের সবচেয়ে বাজে মুহূর্ত উল্লেখ করেছেন সালাহ, ‘আমার মনে আছে যখন ৩০ মিনিট বা তার কিছু পর মাঠের বাইরে চলে গেলাম, এটা ছিল আমার ক্যারিয়ারের সবচেয়ে বাজে মুহূর্ত। আমি সত্যিই খুব ভেঙে পড়েছিলাম। হাসপাতালে ছিলাম বলে ম্যাচ শেষেই ফল জানতে পেরেছিলাম। তখন মনে হচ্ছিল, ‘এভাবে আমরা হারতে পারি না।’ এই অনুভূতিটা ফুটবলে আমার আগে কখনও হয়নি।’

ইউরোপ সেরার মঞ্চে ১২ ম্যাচে ৮ গোল করে ফাইনালে পা রাখছেন সালাহ। কদিন আগে প্রিমিয়ার লিগ শিরোপা হারের দুঃখ ভুলে ইউরোপের সম্মানজনক ট্রফি জিততে উজ্জীবিত মিশরীয় জাদুকর। এই মৌসুমে লিগ কাপ ও এফএ কাপ জেতা লিভারপুল সম্প্রতি ম্যানসিটির কাছে এক পয়েন্টের জন্য লিগ শিরোপা হারানোয় অভূতপূর্ব কোয়াড্রুপল পায়নি।

সালাহ বললেন, ‘মাদ্রিদের সঙ্গে গতবার যা হয়েছিল তারপর এবং গত রোববার যা হলো তারপর প্রত্যেকে চ্যাম্পিয়নস লিগ জিততে উজ্জীবিত। এটা আমাদের জন্য অবিশ্বাস্য ট্রফি এবং আমি এখানে আসার পর থেকে প্রতি মৌসুমে এটার জন্য আমরা লড়েছি।’