সিরাজগঞ্জে হত্যা মামলায় ৩ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

সিরাজগঞ্জে হত্যা মামলায় ৩ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

রাজশাহী

সিরাজগঞ্জে হত্যা মামলায় তিনজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। একইসঙ্গে প্রত্যেককে ২০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড অনাদায়ে ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়। এছাড়া ২০১ ধারায় প্রত্যেককে আরও ৭ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড এবং তিন হাজার টাকা অর্থদণ্ড অনাদায়ে আরও এক মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

সোমবার (২৩ মে) দুপুরে সিরাজগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ ১ম আদালতের বিচারক বেগম সালমা খাতুন এ রায় দেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আদালত পরিদর্শক মো. মোস্তফা কামাল।

যাবজ্জীবন দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- এনায়েতপুর থানার খুকনী কান্দিপাড়া গ্রামের মো. রইচ উদ্দিন প্রামানিকের ছেলে মো. আ. রহিম খলিফা (৫০), একই গ্রামের মৃত শুকুর আলী সরকারের ছেলে মো. আ. রহমান (৪৮) ও মো. ওয়াজেদ আলীর ছেলে মো. খুশি আলম (৪২)।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, এনায়েতপুর থানার রূপনাই (গাছপাড়া) গ্রামের ইয়াসিন মোল্লার ছেলে ইয়াকুব একই থানার খুকনী কান্দিপাড়া গ্রামের খুশি আলম ও মো. আ. রহিম খলিফার মেয়েদের উক্ত্যক্ত করতেন। এ ঘটনার জের ধরে ২০২০ সালের ৫ জানুয়ারি সন্ধ্যায় আ. রহিম খলিফা ও আ. রহমান মিলে পরিকল্পিতভাবে ইয়াকুব আলীকে শ্বাসরোধে হত্যা করেন। লাশ গুম করার জন্য খুকনী ইউনিয়নের ইসলামপুর গ্রামের মো. নুরু হাজী ও আ. কুদ্দুসের সরিষা ক্ষেতের সীমানায় ফেলে আসেন।

ঘটনার পরের দিন ইয়াকুব আলীর বাবা ইয়াসিন আলী এনায়েতপুর থানায় অজ্ঞাতদের আসামি করে একটি হত্যা মামলা করেন। মামলার তদন্তের এক পর্যায়ে মো. আ. রহমানকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। রহমান গ্রেপ্তার হওয়ার পর হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে আরও দুইজনের জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন।

আদালত পরিদর্শক মো. মোস্তফা কামাল বলেন, দীর্ঘ সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে আসামি খুশি আলম ও মো. আ. রহিম খলিফার উপস্থিতিতে আদালত এই রায় ঘোষণা করেন। পরে তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেওয়া হয়।