ওবায়দুল কাদের

বিএনপির মুখে গণমাধ্যমের স্বাধীনতা আর ভুতের মুখে রাম নাম

জাতীয়

সোমবার (২৩ মে) এক বিবৃতিতে গণমাধ্যমে স্বাধীনতা নিয়ে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের বক্তব্যের নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে তিনি এ মন্তব্য করেন।

মির্জা ফখরুলের বক্তব্য ‘চিরাচরিত মিথ্যাচার ও দুরভিসন্ধিমূলক’ মন্তব্য করে ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি মহাসচিব গণমাধ্যমে স্বাধীনতা নেই বলে বক্তব্য দিয়েছেন, অথচ প্রতিদিন গণমাধ্যমে বিএনপি নেতাদের মিথ্যাচারের সংবাদ পরিবেশিত হচ্ছে।

তিনি বলেন, বিএনপি নেতাদের মনগড়া ও নির্জলা মিথ্যাচার কোনোরকম সম্পাদনা ছাড়াই গণমাধ্যমে প্রচার করা হচ্ছে। টকশোসহ বিভিন্ন প্রোগ্রামে বিএনপি নেতাদের উদ্দেশ্যপ্রণোদিত মিথ্যাচার ও অপপ্রচার প্রতিদিন সম্প্রাচারিত হচ্ছে। তারপরও তারা গণমাধ্যমের স্বাধীনতা নিয়ে অবান্তর প্রশ্ন তুলছেন।

কাদের বলেন, বাংলাদেশে দেশরত্ন শেখ হাসিনা প্রায় অর্ধশত বেসরকারি টেলিভিশনের অনুমোদন দেন এবং তারই ধারাবাহিকতায় আজ দেশে প্রায় টেলিভিশন চ্যানেল এবং অনলাইন টিভি, আইপি টিভিসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের কল্যাণে গণমাধ্যমের অবারিত দ্বার উন্মুক্ত হয়েছে। পাশাপাশি সহস্রাধিক দৈনিক, সাপ্তাহিক ও মাসিক পত্রিকা এবং অসংখ্য অনলাইন নিউজ পোর্টাল রয়েছে।

ওবায়দুল কাদের তার বিবৃতিতে বলেন, রাজনৈতিক ব্যর্থতার ভারে ন্যুজ বিএনপির কাছে স্বাধীনতার অর্থ কী তা দেশবাসী জানে।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, বন্দুকের নলের মুখে গণমাধ্যম কর্মীদের জিম্মি করে রেডিও-টেলিভিশন ভাষণে নিজেকে অবৈধভাবে রাষ্ট্রপতি ঘোষণার মধ্য দিয়ে অসাংবিধানিক পন্থায় রাষ্ট্র ক্ষমতাদখলকারী স্বৈরাচার জিয়াউর রহমানের হাতে প্রতিষ্ঠিত দল বিএনপি নেতাদের মুখে গণমাধ্যমে স্বাধীনতার কথা মানায় না।

তিনি বলেন, আমরা বিএনপি নেতাদের প্রতি আহ্বান জানাবো আপনারা মিথ্যাচার ও অপপ্রচারের পথ পরিহার করে মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় আস্থা রেখে দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করুন। আপনারা ষড়যন্ত্রের পথ পরিহার করে দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করলে বাংলাদেশের অগ্রগতি সমৃদ্ধির প্রতিবন্ধকতা মুক্ত হবে।