ফুলবাড়ীতে মাস্টার্স পরীক্ষার্থীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

ফুলবাড়ীতে মাস্টার্স পরীক্ষার্থীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

দিনাজপুর

দিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে নিজ শয়নকক্ষের বৈদ্যুতিক ফ্যানের সাথে ওড়না পেঁচিয়ে গলায় ফাঁস দেওয়া অবস্থায় রিক্তা আক্তার (২৩) নামের এক মাস্টার্স পরীক্ষার্থীনির ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। মরদেহর পাশে পরে ছিল হাতের লেকা একটি চিরকুট। সেখানে লিখা ছিল ‘আমার মৃত্যুর জন্য কেউ দায়ী নয়।’

ঘটনাটি ঘটেছে, রোববার সকালে ফুলবাড়ী উপজেলার ৭নং শিবনগর ইউনিয়নের ফকিরপাড়া চামড়া গুদাম গ্রামে।

নিহত শিক্ষার্থী রিক্তা আক্তার ওই গ্রামের বাসিন্দা ও শিবনগর ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ডের নির্বাচিত ইউপি সদস্য (মেম্বার) মো. মোশাররফ হোসেনের তৃতীয় কন্যা এবং দিনাজপুর সরকারি কলেজের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের মাস্টার্স ফাইনাল পরীক্ষার পরীক্ষার্থীনি ছিলেন।

দুপুরে হাতের লেখা চিরকুটসহ মরদেহটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য দিনাজপুর এম আব্দু রহিম মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করেছে থানা পুলিশ।

নিহত রিক্তার আক্তারের পিতা ওয়ার্ড ইউপি সদস্য (মেম্বার) মোশাররফ হোসেন বলেন, রিক্তা আক্তার মাস্টার্স ফাইনাল পরীক্ষা দিচ্ছে। রিক্তা আক্তার গত শনিবার (১৪ মে) দিনাজপুরে পরীক্ষা দিয়ে বাড়ীতে আসে। রাতে সবার সাথে খাওয়া-দাওয়া শেষে রাত দুটোর দিকে নিজ শয়নকক্ষে ঘুমাতে যায়। সকালে রিক্তার মা বিক্তাকে ডাকাডাকি করলে রিক্তার কোনো সাড়াশব্দ না পেয়ে বিষয়টা সন্দেহ হলে ঘরের দরজা ভেঙে দেখা যায় রিক্তার মরদেহ ঝুলছে ফ্যানের সঙ্গে। পরে থানা পুলিশ এসে মরদেহ উদ্ধার করে নিয়ে গেছে ময়নাতদন্তের জন্য।

ফুলবাড়ী পৌরসভার মেয়র মো. মাহমুদ আলম লিটন ও থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আশ্রাফুল ইসলাম ও শিবনগর ইউপি চেয়ারম্যান ছামিদুল ইসলাম মাস্টার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আশ্রাফুল ইসলাম বলেন, চিরকুটসহ মরদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য দিনাজপুর এম আবদুর রহিম মেডিকেল কলেজের মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পাওয়া গেলে মৃত্যুর কারণ নিশ্চিত হওয়া যাবে।