নচিকেতা-আসিফের ‘কাঁটাতার’

নচিকেতা-আসিফের ‘কাঁটাতার’

বিনোদন

কাঁটাতারের এপার থেকে, দেখছি তুমি আছোই সুখে, রাজত্বটা তোমার শাসনে, বসে আছো সিংহাসনে—ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তের এদিকটায় বসে গিটার হাতে এভাবেই আক্ষেপের সুর ছুড়ে দিলেন ঢাকার সংগীতশিল্পী আসিফ আলতাফ।

এর জবাবে পশ্চিমবঙ্গের কিংবদন্তি নচিকেতা সুরে সুরে বললেন—দূর থেকে মনে হয়, সুখেই আছি আমি বোধহয়, সুখ আসলে কার চরণে, জানে খোদা জানে ভগবানে…

এমন অসাধারণ সওয়াল-জবাবের মধ্য দিয়ে দুই বাংলার দুই শিল্পীর কণ্ঠে উঠে এলো বাংলাভাগের আক্ষেপ আর সীমান্তে কাঁটাতারের ক্ষোভ। ‘কাঁটাতার’ নামে বিশেষ এই গানটি সম্প্রতি প্রকাশ হয়েছে ইউটিউবে। কণ্ঠের পাশাপাশি যার কথা ও সংগীত পরিচালনা করেছেন আসিফ আলতাফ নিজেই। সহশিল্পী হিসেবে এতে কণ্ঠ দিয়েছেন নচিকেতা। গানটি প্রযোজনা করেছে ‘চিরকুট’ সদস্য পাভেল আরিনের বাটার কমিউনিকেশন।

গানটি তৈরি ও প্রকাশ প্রসঙ্গে আসিফ আলতাফ বলেন, ‘প্রচণ্ড আত্মবিশ্বাসী, কখনও অহংকারী, বেপরোয়া সত্যভাষী একজন সংগীতজ্ঞ নচিকেতা। সেজন্যই বহু দিন ধরে একটা গান মাথায় ঘুরছিল তাঁকে নিয়ে। তিনি গাইবেন না কি গাইবেন না, এটা ছিল সবচেয়ে বড় সংশয়। বন্ধু পাভেল আরিন গানটি শোনার সাথে সাথেই সিদ্ধান্ত নিল আমি আর নচিকেতা নাকি একসাথে গাইব সেটা!

আশ্চর্যের ব্যাপার হচ্ছে, গাইবার জন্য আলোচনা থেকে শুরু করে রেকর্ডিং শেষ হওয়া পর্যন্ত নচিকেতার আন্তরিকতা আর পেশাদারত্ব ছিল লক্ষণীয়। আমার লেখা-সুরে, আমায় সঙ্গে নিয়েই তিনি গাইলেন, এটা আমার জন্য একটা বিশাল পাওয়া। তবে এর চেয়েও আমি বেশি অবাক হয়েছি তাঁর সাহসিকতা দেখে। তাঁর অবস্থানে বসে এমন লিরিক উচ্চারণ করতে আমি নিজেও দ্বিধা করতাম। এই সাহসী উচ্চারণ নচিকেতাকে দিয়েই সম্ভব।’

‘কাঁটাতার’ গানটির ভিডিও নির্মাণ করেছেন মোমিন বিশ্বাস। এতে দেখা যাচ্ছে আসিফ-নচিকেতা দুজনকেই। দুজনার পাশাপাশি ভিডিওতে রয়েছে কথার রেশ ধরে পঙ্কজ বর্মণের প্রাসঙ্গিক চিত্রকর্ম।

শ্রোতার উদ্দেশ্যে আসিফ বলেন, ‘গানটি আমার মনের কথা, ক্ষোভের কথা। সঙ্গে নচিকেতার সাহসিকতা, ভালো লাগলে সাথেই থাকবেন বিশ্বাস করি।’