পায়ের নূপুর না পেয়ে মায়ের ওপর অভিমান করে কিশোরীর আত্মহত্যা

পায়ের নূপুর না পেয়ে মায়ের ওপর অভিমান করে কিশোরীর আত্মহত্যা

দিনাজপুর

দিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে পায়ের নুপুর কিনে না দেওয়ায় জন্য মায়ের ওপর অভিমান করে বৃষ্টি আক্তার সোহাগী (১৫) নামের এক স্কুল শিক্ষার্থী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মত্যা করেছে।

ঘটনাটি ঘটেছে, গত মঙ্গলবার রাতে ফুলবাড়ী উপজেলার ৪নং বেতদীঘি ইউনিয়নের খরমপুর গ্রামে।

নিহত বৃষ্টি আক্তার সোহাগী ওই গ্রামের দিনমজুর মহাসিন মন্ডলের মেয়ে এবং সিদ্দিশী উচ্চবিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী ছিল।

পরিবার ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, মায়ের কাছে পায়ের নুপুর কিনে দেওয়ার জন্য বায়না ধরেছিল বৃষ্টি আক্তার সোহাগী। কিন্তু অভাবের সংসারে অর্থের অভাবে তার মা তাকে পায়ের নুপুর কিনে দিতে না অপারগতা জানিয়ে ইউনিয়ন অফিসে টিসিবি’র পণ্য কিনতে মাদিলাহাট যান।

এরইমধ্যে নিজ শয়নকক্ষের বর্গার সাথে ওড়না দিয়ে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে অভিমানী পেচিয়ে আত্মহত্যা করে বৃষ্টি আক্তার সোহাগী। পরে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য এম আবদুর রহিম মেডিকেল কলেজের মর্গে পাঠিয়ে দেয়।