বিরামপুরে আদিবাসির মানববন্ধন

দিনাজপুর

দিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুরের বিরামপুরে ঢাকামোড় এলাকায় বুধবার বিকেলে বাংলাদেশ আদিবাসি সমিতির বিরামপুর পৌরসভা শাখার উদ্যোগে ভূমি দস্যুদের বিরুদ্ধে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আদিবাসি সমিতির উপদেষ্টা আরিফ খান ইউসুফ জাই,বাংলাদেশ আদিবাসি সমিতির সভাপতি বিশ^নাথ শিং, বাংলাদেশ জাতীয় আদিবাসি পরিষদ কমিটির সভাপতি রবিন সরেন,বাংলাদেশ সমাজতান্ত্রিকদল,দিনাজপুর জেলা শাখার বাসস এর জেলা সমন্বয়কারী কিবরিয়া হোসেন,

রবিন সরেন, বিরামপুর উপজেলার পলিগ্রায়গপুর ইউনিয়নের ১৫২ খতিয়ানভূক্ত ১৩৫৩ দাগের ৭৫ শতক জমি ১০৪০০ নং দলিল মূলে ১৯৭৫ সালে মুল মালিকগণের কাছ থেকে ক্রয় কেের ঘরবাড়ি নির্মান করে ভোগদখল ও চাষাবাদ করে আসছে শ্যামল পাহান,মিঠুপাহান, সুবাশ পাহান। এই জমি আত্মসাতের উদ্দেশ্যে দিনাজপুর সিনিয়র সহকারী জজ আদালতে একটি সিভিল মামলা ২০০৫সালে দায়ের করা হয়।
লোকমান, মিঠুমিয়া, মিলন মিয়া,হুইল, হায়দার আলী, দিলদার আলী, ইসমাইল,ফিরোজ আলী, ফারুক,ফরহাদ,রফিসহ ৫০জন ভূমি দস্যু লাঠিসোডা ও ধারালো অস্ত্র বলরাম নিয়ে আদিবাসীদের বাড়ীঘরের উপর হামলা চালিয়ে জমি দখলের চেষ্টা করে। এ সময় ঘটনাস্থলে মিঠুয়া, রাজাপাহান, জয়মনি, বিমল, বিকাশকে লাঠিসোডা দিয়ে পিটিয়ে আহত করে। বাড়ীঘর ভাংচুর করে সম্পত্তি দখল করার চেষ্টা করে। এতে বাধা দেওয়ার ফলে লাঠিয়াল বাহিনীরা জীবন নাশের হুমকিসহ দেয়।

পৌরশহরের চাঁদপুর এলাকায় পৈত্রিক সুত্রে প্রাপ্ত জমির মালিক পাউলুস হাঁসদা দখলদারদের বিরুদ্ধে দিনাজপুর সহকারী জজ আদালতে মামলা করে একতরফা ডিক্রি লাভ করেন। চাঁদপুর মৌজার খতিয়ান নং সিএ-৬১ এস,এস ৬৩ দাগ নং-১৫৫,১৫৬ জমির পরিমান মোট ৫০ শতক। ভূমি দস্যু নুরুজ্জামান সরকার ও জাহানারা গংরা পাউলুস হাঁসদাকে বাড়ী উচ্ছেদের হুমকি দিয়ে আসছে।

বিরামপুর খতিয়ান নং ১৪৪ দাগ নং ১১৭৩,১১৫২,১৩৮২, পরিমান ২ একর ৮০ জমি রেকর্ডীয় পৈত্রিক ওয়ারিশসুত্রে শ্রী মতি ভেরানিকা সরেন, সুখি সরেন, ইলিয়াস সরেন, ওমন সরেন,পরিমল সরেন, ললদি সরেন এঁরা সকলেই জমির উপর গাছপালা ও শস্যাদি চাষাবাদ করে আসছেন। ভূমি দস্যু ইউসুফ আলী গং পরিমান বসতভিটা থেকে উচ্ছেদ ও প্রাণ নাশের হুমকি দিয়া আসছে। ইউসুফ আলী ওই ব্যক্তিগণের বিরুদ্ধে যুগ্ম জজকোর্টে ২০০৭ আদালতে মামলা দায়ের করে পরাজিত হন। সে একাধিকবার আদীবাসি পরিবারের উপর মিথ্যা মামলা করে আর্থিক ক্ষতিসাধনের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।