দিনাজপুরে নির্মিত শহিদ স্মৃতিস্তম্ভে শহিদ পরিবারসহ বিভিন্ন সংগঠনের শ্রদ্ধা

দিনাজপুর

দিনাজপুর সংবাদাতাঃ আজ ১৩ এপ্রিল। ১৯৭১ সালের এই দিনে দিনাজপুর শহরের রাজবাটী এলাকার কাটাপাড়া, গোলামপাড়া, নতুনপাড়া ও গুঞ্জাবাড়িতে নৃশংস গণহত্যা চালায় হানাদার বাহিনীরা। গণহত্যায় প্রায় ২৫ জন শহিদ হোন। গণহত্যায় শহিদদের স্বরণে শহরের ঐতিহাসিক সুখ সাগরে নির্মিত স্মৃতিস্তম্ভে আজ বুধবার সকাল ৯টায় শহিদ পরিবারের সদস্যরা শ্রদ্ধা জানিয়েছেন।

এরপরেই শ্রদ্ধা জানান রাজবাটী মহল্লা আওয়ামী লীগের সভাপতি মিনারুল ইসলাম মানিকের নেতৃত্বে সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক সুশান্ত নারায়ণ ঘোষসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট দিনাজপুর সভাপতি সুলতান কামাল উদ্দিন বাচ্চু, সাধারণ সম্পাদক মো. রহমততুল্ল্যাহ, জাতীয় রবীন্দ্রসঙ্গীত সম্মিলন পরিষদ দিনাজপুর সভাপতি রবিউল আউয়াল খোকা, দোলনচাঁপা সংগীত বিদ্যালয়ের সাধারণ সম্পাদক প্রদীপ ঘোষ, শহর আওয়াামী লীগের সহ-সভাপতি দেবাশীষ ভট্টাচার্য্য, জুবিলী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বুনু বিশ্বাসসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তি দেবাঞ্জন ভট্টাচার্য, তাপস মজুমদার, শহীদ পরিবারের সদস্য সন্ধ্যা রানী পাল স্বর্গ, দুলাল ভৌমিকসহ অনেকে।

দিবসটি উপলক্ষে স্মৃতিস্তম্ভে আয়োজিত আলোচনা সভায় রাজবাটী গণহত্যার গবেষক বিধান দত্তের সভাপতিত্বে প্রধান আলোচক হিসেবে গণহত্যার স্মৃতিচারণ করেন বাংলাদেশ ইতিহাস সম্মিলনী, দিনাজপুরের সভাপতি, দিনাজপুর সরকারি সিটি কলেজের অধ্যক্ষ মো. মোজাম্মেল হক।

প্রসঙ্গত, ২০১৯ সালের ৯ সেপ্টেম্বর গণহত্যা জাদুঘরের অধীনে দিনাজপুরের সুখসাগরে রাজবাটী গণহত্যার স্মরণে নির্মিত স্মৃতিফলক উন্মোচন করেন সংস্কৃতি বিষয়ক সচিব ড. মো: আবু হেনা মোস্তফা কামাল। এরপর থেকে এ স্মৃতিস্তম্ভে শহিদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান শহিদ পরিবারসহ দিনাজপুরের সংগঠনগুলো।