রংপুরের ৪ নারী ফুটবলার প্রশিক্ষণ নিতে পর্তুগাল-ব্রাজিলে যাচ্ছে

রংপুর

রংপুর সদর উপজেলার ৪ নারী ফুটবলার এখন ইউরোপের দেশ পর্তুগালে যাওয়ার জন্য মনোনীত হয়েছেন। এ ছাড়া জেলার পীরগঞ্জ ফুটবল একাডেমি থেকে একজন তরুণ ফুটবলারও যাচ্ছেন পেলে-নেইমারের দেশ ব্রাজিলে। তাদের সবাইকে উন্নত প্রশিক্ষণের জন্য ইউরোপ-আমেরিকার দেশে পাঠানোর উদ্যোগ নিয়েছে বাংলাদেশ ক্রীড়া পরিদপ্তর।

বালক ও বালিকা বিভাগে মনোনীত খেলোয়াড়দের নামের চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। সেই তালিকায় বাজিমাত করেছে রংপুরের ফুটবলাররা।

প্রশিক্ষণের জন্য দুটি দলে ১১ বালক এবং ১১ বালিকা ফুটবলার (অনূর্ধ্ব-১৭) মনোনীত হয়েছেন। প্রকাশিত তালিকায় নাছরিন আক্তার, মৌরাশি আক্তার, শাম্মি আক্তার ও রেখা আক্তারের নাম রয়েছে। এরা সবাই সদর উপজেলার পালিচড়া গ্রামের সদ্যপুস্কুরিনী যুব স্পোর্টিং ক্লাবের ফুটবলার। এ ছাড়া বালকদের (অনূর্ধ্ব-১৭) দলে রয়েছে পীরগঞ্জ ফুটবল একাডেমির মেধাবী ফুটবলার লিয়ন প্রধান।

এদিকে সদ্যপুস্কুরিনী ইউনিয়নের চার নারী ফুটবলার বিদেশে প্রশিক্ষণের জন্য মনোনীত হওয়ায় আনন্দে দিশেহারা গ্রামবাসী। নারী ফুটবলের গ্রামখ্যাত এই ইউনিয়নের বাসিন্দারা বলছেন, সদ্যপুস্কুরিনীর মেয়েরা ফুটবলে দিন দিন এগিয়ে যাচ্ছে। অতীতেও অনেক সাফল্য নিয়ে এসেছে। সদ্যপুস্কুরিনী যুব স্পোর্টিং ক্লাব বাংলাদেশ নারী লীগে খেলেছে। পর্তুগালে প্রশিক্ষণের সুযোগ পাওয়ার বিষয়টিও আরেকটি বড় সাফল্য।

পীরগঞ্জ ফুটবল একাডেমির প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান প্রশিক্ষক মাহমুদুল হাসান সোহেল বলেন। ফুটবল খেলাকে ধরে রাখতে অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছি। আমাদের একাডেমির ক্ষুদে খেলোয়াড়দের লিয়ন বিকেএসপিতেও ভর্তি হয়েছে। সে ভীষণ ভালো খেলে, বিশেষ করে ফরোয়ার্ড পজিশনে দুর্দান্ত। উন্নত প্রশিক্ষণের জন্য ব্রাজিলে যাচ্ছে শুনে বেশ ভালো লাগছে। আমাদের এখন একটাই চাওয়া, লিয়ন যেন জাতীয় পর্যায়ে জায়গা করে নিয়ে দেশের মুখ উজ্জল করতে পারে।