গাইবান্ধায় লেংগাবাজার কলেজটি দু’যুগেও এমপিওভুক্ত হয়নি

রংপুর

আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ গাইবান্ধা সদর উপজেলার লেংগাবাজার আইডিয়াল কলেজটি দুই যুগেও এমপিওভুক্ত হয়নি। এর পরে প্রতিষ্ঠিত অনেক কলেজ এমপিওভুক্তির আওতায় এলেও লেংগাবাজার কলেজ ব্যতিক্রম হয়েই থেকে গেলো। অথচ এই কলেজে সরকারি উদ্যোগে নির্মিত চারতলা বিশিষ্ট একাডেমিক ভবন রয়েছে। দুই শতাধিক ছাত্রছাত্রী পরীক্ষা দিচ্ছে প্রতি বছর। জিপিএ-৫ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছে অনেকেই। অথচ এর শিক্ষকরা বেতন বিহীন শিক্ষকতা করে অব্যাহতভাবে পাঠদান কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন। বর্তমানে এমনি এক অমানবিক অবস্থা চলছে শিক্ষকদের জীবনে। এক অনিশ্চিত ভবিষ্যৎ নিয়ে চলছে তাঁরা।

১৯৯৮ সালে লেংগাবাজার আইডিয়াল কলেজটি প্রতিষ্ঠিত হয়। রাজশাহী শিক্ষা বোর্ড থেকে পাঠদানের অনুমতি পায় ১৯৯৯ সালে। একাডেমিক স্বীকৃতি পায় ২০০৩ সালে। প্রথম বছর পরীক্ষায় ২০ জন অংশ গ্রহণ করে ২০০১ সালে। পরবর্তীতে ২০২১ সালে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা হয় ২২০ জন। ২০২১ সালে বিজ্ঞান বিভাগে ৮ জন এ প্লাস সহ ১৩ জন উর্ত্তীণের মাধ্যমে শতভাগ নিশ্চিত হয়। সেসময় মানবিক বিভাগে একজন এ প্লাস পায়। অন্যরা বিভিন্নভাবে উত্তীর্ণ হয়। সর্বশেষ এমপিও’র আবেদনে সরকারি সকল শর্ত পূরণ করে কাগজপত্র সংশ্লিষ্ট দপ্তরে জমা দেওয়া হয়েছে।

এব্যাপারে কলেজের অধ্যক্ষ টিআইএম মিজানুর রহমান বলেন, সরকারি বেতন না পেলেও এখানকার শিক্ষকরা যথাযথ দায়িত্ব পালন করছেন। ইতোমধ্যে ২১টি ব্যাচে পরীক্ষার্থীরা অংশ নিয়েছে। বর্তমানে একাদশ ও দ্বাদশ শ্রেণি মিলে শিক্ষার্থীর সংখ্যা রয়েছে ৪১০ জন। চরাঞ্চলের শিক্ষার্থীরা এখান থেকে পড়াশোনা করে বিভিন্ন স্থানে উচ্চ শিক্ষা গ্রহণ করছে। তিনি সরকারের কাছে অবিলম্বে এই কলেজটিকে এমপিওভুক্ত করার আবেদন জানান।

জেলা শিক্ষা অফিসার মো. এনায়েত হোসেন বলেন, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তির জন্য আবেদন করেছে। এমপিওভুক্তির বিষয়টি মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় রয়েছে।