রুপচর্চায় পাকা আম

সাজগোজ টিপস

গ্রীষ্মের দাবদাহে সবাই অতিষ্ঠ। কিন্তু এই গ্রীষ্মই নিয়ে আসে ঐশ্বর্য্যের ভান্ডার। আম গ্রীষ্মের এক অনন্য উপহার। শুধু মাত্র আমের স্বাদ পেতেই অনেকে গ্রীষ্মের জন্য অপেক্ষা করে। আমকে বলা হয় ফলের রাজা। আম স্বাদে যেমন মজাদার, গুণেও পুষ্টিকর একটি উপাদান। আম শুধুমাত্র ভিটামিনে ভরপুর বা স্বাস্থ্যের পক্ষে ভালো ফল তা নয়, আম কিন্তু ত্বক ও চুল ভাল রাখতেও সাহায্য করে। গ্রীষ্মের আশীর্বাদ এই আমের সম্পর্কে আমরা খুব কমই জানি।

আসুন জেনে নিই ত্বক ও চুলের যত্নে আমের ব্যবহারঃ-

১) রিংকেলস দূর কর‍তে আম ও ডিমের প্যাক
প্রতিদিন আমাদের ত্বক বিভিন্ন কিছুর মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। অন্যতম একটি সমস্যা হলো দূষণ। দূষণের কারণে স্বাস্থ্যের নানাবিধ সমস্যা দেখা দিচ্ছে। তার মধ্যে অন্যতম একটি সমস্যা চেহারায় বলিরেখা বা রিংকেলস। রিংকেলস দূর করতে পাঁকা আম ও ডিমের প্যাক অভাবনীয় কাজ করে।

প্রয়োজনীয় উপকরণঃ আমের পাল্প, ডিমের সাদা অংশ।

যেভাবে ব্যবহার করবেনঃ একটি খালি বাটি নিন। তাতে একটি আস্ত আম চটকে নিন। আম ভালোভাবে চটকানো হলে তাতে অ্যাড করতে হবে একটি ডিমের সাদা অংশ। দুইটি উপাদান খুব ভালোভাবে মিক্স করে নিন। একটি ব্রাশের সাহায্যে সম্পূর্ন ত্বকে ম্যাসাজ করে নিন। ২০ মিনিট পর শুকালে ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে একবার অন্তত করা গেলে খুব ভালো রেজাল্ট পেয়ে যাবেন। এতে বলিরেখা কমে আসবে ও ত্বক টানটান হবে।

২) উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করতে আমের ফেইসপ্যাক
আমে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। এটি ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করে ত্বকে তারুণ্য ফিরিয়ে আনে। এটা ত্বকের দাগ দূর করতেও সাহায্য করে।

প্রয়োজনীয় উপকরণঃ আম, নারকেল তেল, চিনি, কমলার রস।

যেভাবে ব্যবহার করবেনঃ একটি ব্লেন্ডার নিন। তাতে কয়েক টুকরো আম নিন। তাতে একে একে চিনি, এক টেবিলচামচ নারকেল তেল, এক টেবিলচামচ কমলার রস অ্যাড করুন। সবগুলো উপাদান ভালোভাবে ব্লেন্ড করুন। ব্লেন্ড করা শেষে একটি পরিষ্কার বাটিতে ঢেলে নিন। এবার হাতের সাহায্য নিয়ে সম্পূর্ণ ত্বকে অ্যাপ্লাই করুন। সার্কুলার মোশনে ঘষে ঘষে ম্যাসাজ করুন। এটা স্ক্রাবিং এর কাজ করবে। আর আমের সাথে অ্যাড করা চিনি, কমলার রস ও নারকেল তেল ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করতে দারুণ কাজ করবে। কমলার রস এই স্ক্রাবে সিট্রাস গুণাগুণ যোগ করে। এটা ত্বকে প্রাকৃতিক উজ্জ্বলতা দেয়। আর এর গন্ধ সতেজ ও প্রাণবন্ত করে তোলে।

৩) ব্ল্যাক হেডস দূর করতে আম ও দুধের ফেইস প্যাক
ব্ল্যাক হেডস খুবই জেদি একটি সমস্যা। চেহারা কালো ছোপ এনে দেখতে অসুন্দর করে তোলে। আর যাই করা হোক না কেনো এই নাছরবান্দা যেতে চায় না। গ্রীষ্মকালীন এই ফলের মাধ্যমে বিদায় করুন ব্ল্যাক হেডস।

প্রয়োজনীয় উপকরণঃ আম, মধু, দুধ।

যেভাবে ব্যবহার করবেনঃ একটি বাটিতে আমের পাল্প চটকে নিন। আমের সাথে অ্যাড করুন দুই টেবিলচামচ মধু ও এক টেবিলচামচ কাঁচা দুধ। এই সবগুলো উপাদান ভালোভাবে মিক্স করে নিন। আপনার ত্বকে ভালোভাবে অ্যাপ্লাই করে নিন। হালকা শুকালে নাকের আশেপাশে ও ব্ল্যাকহেডস যেখানে আছে সেইখানে আলতো করে ঘষুন। এইভাবে ব্ল্যাক হেডস এর পাশাপাশি হোয়াইট হেডস ও দূর হবে। সপ্তাহে দুইবার করে ব্যবহার করুন।

৪) মৃত কোষ দূর করতে আমের ফেইস প্যাক
মৃত কোষ আমাদের চেহারার উজ্জ্বলতা নষ্ট করে দেয়। নিয়মিত যত্ন না নিলে চেহারা মলিন হয়ে উজ্জ্বলতা হারিয়ে যায়। তাই প্রতি সপ্তাহে চেহারার যত্ন নিতে হবে। মৃত কোষ দূর করার জন্য আম খুবই উপকারী ও কার্যকরী।

প্রয়োজনীয় উপকরণঃ আম, কাঠবাদাম গুড়া, ওটমিল গুড়া, দুধ।

যেভাবে ব্যবহার করবেনঃ প্রথমে একটি বাটি নিন। সেইখানে আম চটকে ঘন পেস্ট তৈরি করে নিন। তার মধ্যে এক টেবিলচামচ করে একে একে অ্যাড করুন কাঠবাদাম গুড়া, ওটমিল গুড়া ও কাঁচা দুধ। সবগুলো উপাদান ভালোভাবে মিক্স করুন। এই ফেইস প্যাকটি সম্পূর্ণ ত্বকে ভালোভাবে অ্যাপ্লাই করুন। ২০ মিনিট অপেক্ষা করুন। কিছুক্ষণ শুকালে ধুয়ে ফেলবেন। এবং পছন্দের ময়েশ্চারাইজার এপ্লাই করবেন। সপ্তাহে অন্তত দুইবার এই প্যাকটি ব্যবহার করলে ভালো রেজাল্ট পাওয়া যাবে। এতে করে মৃত কোষ দূর হবে। ফলে ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি পাবে।

৫) পিম্পল প্রতিরোধে সিদ্ধ আম
পিম্পলের যন্ত্রণায় ছটফট করছেন কি? অনেক কেমিক্যাল জাতীয় প্রোডাক্ট ব্যবহারেও কাজ হচ্ছে না? ব্যবহার করুন এই মৌসুমি ফল। পিম্পল বা একনে দূর করতে কাঁচা আম হতে পারে একটি সলিউশন।

প্রয়োজনীয় উপকরণঃ আম, ১ লিটার পানি।

যেভাবে ব্যবহার করবেনঃ একটি প্যানে ১ লিটার পানি নিবেন। তাতে একটি কাঁচা আম কুচি কুচি করে কেটে দিয়ে দিন। চুলার তাপমাত্রা মিডিয়াম টু লো তাপমাত্রায় রাখতে হবে। পানি শুকিয়ে যখন এক লিটার থেকে আধা লিটার হয়ে যাবে তখন নামিয়ে এনে ঠান্ডা করতে হবে। ফ্রিজে রেখে দিন কিচ্ছুক্ষণ সময়ের জন্য। বের করে নিন। একটু কটন বলের সাহায্যে পিম্পলের উপর অ্যাপ্লাই করুন। এই পদ্ধতিতে রেগুলার ব্যবহার করার ফলে পিম্পল কমে যাবে। তার পাশাপাশি চেহারায় দাগ থাকলে সেটাও দূর হবে।

৬) চুলের ফ্রিজিনেস বা শুষ্কতা দূর করতে আমের প্যাক
চুলের ফ্রিজিনেস খুবই ঝামেলার একটি বিষয়। আর দেখতে আরো বাজে লাগে। কোনো ফাংশান বা পার্টির জন্য এই রুক্ষ শুষ্ক চুল নিয়ে রেডি হওয়া খুব ঝামেলা। তাই চুলে স্মুথ ভাব এনে দেয়ার জন্য অ্যাপ্লাই করুন আমের তৈরি হেয়ার প্যাক।

প্রয়োজনীয় উপকরণঃ আম, ডিমের কুসুম, দই।

যেভাবে তৈরি করবেনঃ একটি ব্লেন্ডার ব্যবহার করুন প্যাকটি তৈরি করতে। ব্লেন্ডারে আম, দুইটি ডিমের কুসুম আর ৩ চামচ দই অ্যাড করে নিন। ভালোভাবে ব্লেন্ড করে নিন এই সবগুলো উপাদান। ব্লেন্ড করা হলে আপনি চাইলে এতে এক ফোটা এসেন্সিয়াল অয়েলও অ্যাড করতে পারেন। এই হেয়ার প্যাকটি মাথার ত্বক ও চুলে ভালোভাবে অ্যাপ্লাই করে নিন। এবার ৩০/৩৫ মিনিট চুলে এইভাবেই রেখে দিন। এরপর মাইল্ড শ্যাম্পু দিয়ে চুল ভালোভাবে ধুয়ে নিন। হেয়ার প্যাকটি সপ্তাহে অন্তত একবার ব্যবহার করার চেষ্টা করবেন। তাহলে চুল স্মুথ ও বাউন্সি হবে।