ফার্মেসীতে ঔষধ কিনতে গিয়ে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে নীলফামারী থানার পুলিশের কনষ্টবেল রিয়াজুল ইসলাম (৫০) নামের এক পুলিশ সদস্য শনিবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে মৃত্যু বরন করেছে।

পুলিশ জানায় শুক্রবার রাতে নীলফামারী সদর থানায় দায়িত্ব পালন শেষে শনিবার সকালে বিশ্রামে যান রিয়াজুল। বিশ্রামকালে অসুস্থতা বোধ করলে চিকিৎসার জন্য তিনি নীলফামারী আধুনিক সদর হাসপাতালে চিকিৎসকের সরণাপন্ন হন।

শনিবার বেলা ১১টার দিকে হাসপাতাল থেকে বের হয়ে জেলা শহরের চৌরঙ্গী মোড়স্থ সেবা ফার্মেসীতে ওষধ নেয়ার সময় সেখানে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন।

এসময় চৌরঙ্গী মোড়ে দায়িত্বরত নীলফামারী ট্রাফিক পুলিশের হাবিলদার আশরাফ আলী ও ট্রাফিক পুলিশ আহাদ আলী রিয়াজুলকে উদ্ধার করে নীলফামারী আধুনিক সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কতব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হাতেম আলী, সহকারী পুলিশ সুপার শফিউল ইসলাম জানান চিকিৎসকদের মধ্যে রিয়াজুল হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন।

নীলফামারী সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) বাবুল আকতার বলেন, সকালে সে একবার হাসপাতালের জরুরী বিভাগে চিকিৎসা নিয়ে এসেছে। সকাল ১১টার দিকে ওষুধ নিতে গিয়ে সেখানেই পড়ে যায়। হাসপাতালে নেয়ার পথে মারা যায় সে।

তিনি বলেন, ২০১২ সালের ৮ অক্টোবর নীলফামারী সদর থানায় যোগদান করেন রিয়াজুল ইসলাম (৫০) । তার পুলিশ সদস্য নং ২৫০। সে দিনাজপুর জেলার বিরল উপজেলার শাবাংসই গ্রামের ধুলতোর পাড়ার ওসমান গণির ছেলে। শনিবার বাদ আছর নীলফামারী পুলিশ লাইন মাঠে নামাজে জানাজা শেষে রিয়াজুলের মৃতদেহ তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য