নওগাঁর মান্দায় নির্বাচনে হেরে রাস্তা কেটে ফেললেন মেম্বার প্রার্থী

নওগাঁর মান্দায় নির্বাচনে হেরে রাস্তা কেটে ফেললেন মেম্বার প্রার্থী

রাজশাহী

নওগাঁর মান্দায় ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে পরাজিত হয়ে যাতায়াতের একটি রাস্তা রাতারাতি কেটে সরিয়ে ফেলেছেন প্রতিদ্বন্দ্বি এক সদস্য প্রার্থী। সোমবার রাত ৮ টার দিকে উপজেলার পরানপুর ইউনিয়নের সদলপুর পুকুরপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এতে ওই গ্রামের অন্তত ৩০ পরিবারের লোকজনের যাতায়াতের পথ বন্ধ হয়ে গেছে।

স্থানীয়দের অভিযোগ, সদ্য সমাপ্ত নির্বাচনে সদলপুর গ্রামের আবদুল কাদের ওই ওয়ার্ডে ‘তালা’ প্রতীকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী আতাউর রহমানের কাছে ১১৩ ভোটের ব্যবধানে পরাজিত হন তিনি। এতে সদলপুর পুকুরপাড় এলাকার লোকজনের প্রতি চরম ক্ষুব্ধ হন পরাজিত প্রার্থী আবদুল কাদের।

গ্রামের বাসিন্দা একাব্বর মন্ডল জানান, প্রায় ২০ বছর ধরে ওই রাস্তা ব্যবহার করে আসছেন পুকুরপাড় গ্রামের লোকজন। গ্রামের লোকজন দরিদ্র হওয়ায় শ্রমিকের কাজসহ চার্জারভ্যান ও অটোরিকশা চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করেন। রাস্তাটি কেটে সরিয়ে ফেলায় চরম বেকায়দায় পড়েছেন তাঁরা।

গ্রামের লিমা খাতুন ও নুরজাহান বিবি বলেন, ভোটের আগে কাদের মেম্বার আমাদের গ্রামে এসে ভোটপ্রার্থনা করেছিলেন। আমরা তাঁকেই ভোট দিয়েছি। অন্য এলাকার ভোট না পাওয়ায় তিনি পরাজিত হন। এর দায় আমাদের কাঁধে চাপিয়ে আবদুল কাদেরের কর্মী-সমর্থকরা যাতায়াতের রাস্তাটি কেটে রাতারাতি সরিয়ে ফেলেন।’

এ প্রসঙ্গে অভিযুক্ত আবদুল কাদের বলেন, ‘আমার ব্যক্তি মালিকানার সম্পত্তি দিয়ে রাস্তাটি নির্মাণ করা হয়েছিল। তাই সেটি কেটে সরিয়ে ফেলা হয়েছে। নির্বাচনে হেরে ক্ষুব্ধ হয়ে কাজটি করেছি এটি সঠিক নয়।’

পরানপুর ইউনিয়নের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান মাহফুজুর রহমান উজ্জ্বল বলেন, ‘সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। স্থানীয়ভাবে বিষয়টি নিষ্পত্তির চেষ্টা করা হচ্ছে।’

মান্দা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আবু বাক্কার সিদ্দিক বলেন, বিষয়টি অবহিত হয়েছি। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।