সানায় ‘ইরানি রেভল্যুশনারি গার্ডসের’ স্থাপনায় হামলা সৌদি জোটের

সানায় ‘ইরানি রেভল্যুশনারি গার্ডসের’ স্থাপনায় হামলা সৌদি জোটের

আন্তর্জাতিক

ইয়েমেনে লড়াইরত সৌদি আরবের নেতৃত্বাধীন জোট জানিয়েছে, তারা দেশটির রাজধানী সানায় ইরানি রেভলুশ্যনারি গার্ডসের একটি ‘গোপন’ স্থাপনাসহ হুতিদের সামরিক লক্ষ্যস্থলে বিমান হামলা চালিয়েছে।

সৌদি আরবের রাষ্ট্রায়ত্ত গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, ইয়েমেনের বেসামরিকদের সতর্ক করে সম্ভাব্য লক্ষ্যস্থলের কাছে বা আশপাশে জড়ো না হতে বলেছে জোট বাহিনী।

ইরান সমর্থিত হুতিদের প্রধান গণমাধ্যম আল মাসিরাহ টেলিভিশন জানিয়েছে, সৌদি নেতৃত্বাধীন জোট সানায় বিমান হামলা চালিয়েছে, এর মধ্যে সানা বিমানবন্দরে তিনটি ও একটি পার্কে অপর হামলাটি চালানো হয়েছে।

এই নিয়ে চলতি মাসে ইয়েমেনের ঘনবসতিপূর্ণ রাজধানীতে বেশ কয়েকবার বিমান হামলা চালালো সৌদি জোট বাহিনী।

২০১৪ সালের শেষ দিকে হুতিরা ইয়েমেনের সৌদি সমর্থিত সরকারকে ক্ষমতা থেকে উৎখাত করে রাজধানী সানা থেকে বের করে দেয়। এরপর ২০১৫ সালের মার্চে ইয়েমেনের গৃহযুদ্ধে হস্তক্ষেপ করে সৌদি আরবের নেতৃত্বাধীন জোট বাহিনী। তখন থেকে ড্রোন ও ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবহার করে প্রতিবেশী সৌদি আরবে বারবার হামলা চালিয়ে আসছে হুতিরা।

দু’পক্ষের এ লড়াইকে বিস্তৃতভাবে সৌদি আরব ও ইরানের মধ্যে চলা ছায়া যুদ্ধ হিসেবে দেখা দেয়। ইয়েমেনের উত্তরাঞ্চলে দেশটির আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত সরকারের শেষ শক্তিকেন্দ্র মারিবসহ দেশটির অন্যান্য এলাকা নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নেওয়ার লক্ষ্যে অভিযান চালাচ্ছে হুতিরা।

রাজধানী সানাসহ ইয়েমেনের অধিকাংশ গুরুত্বপূর্ণ শহর ও অঞ্চল হুতিদের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

ইয়েমেনে একটি যুদ্ধবিরতি কার্যকর করার জন্য জাতিসংঘ ও যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বে চেষ্টা চালানো হলেও সেই প্রচেষ্টা স্থবির হয়ে আছে।