ঠাকুরগাঁওয়ে কিশোরে'র সচেতনতায় দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পেল ট্রেন

ঠাকুরগাঁওয়ে কিশোরে’র সচেতনতায় দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পেল ট্রেন

রংপুর

ঠাকুরগাঁওয়ে ১৫ বছর বয়সী কিশোরের সচেতনতায় ভয়াবহ দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পেল ট্রেন। ঢাকা-পঞ্চগড় রেললাইন স্টেশনের উত্তর পাশে সদর উপজেলার চিলারং ইউনিয়নের ঘুন্টি এলাকার অদূরে ঘটনাটি ঘটে। জানা যায়, গতকাল বিকেলে কয়েকজন বন্ধুসহ রেল লাইনের পথ ধরে বাজারে যাচ্ছিলেন মাসুদ রানা নামে ওই কিশোর। এ সময় তার চোখে পড়ে রেল লাইনের জয়েন্ট প্রায় ৮ ইঞ্চি ভেংগে গেছে।

ভাঙা স্থানের ওপর ট্রেন চললেই ভয়াবহ দুর্ঘটনার শিকার হবেন ট্রেনের যাত্রীরা। এদিকে যখন-তখন চলে আসতে পারে দ্রুতগামী সব ট্রেন। এ ভেবে মাসুদ রানা সঙ্গে সঙ্গে স্থানীয় এক বাড়ি থেকে লাল ওড়না নিয়ে রেললাইনের ওই স্থানে টানিয়ে দেন। এরপর সে দৌড়ে ছুটে যায় রেললাইনের গেটম্যানকে খবর দিতে। খবর পেয়ে রেললাইনের গেটম্যান এসে মাসুদসহ লাল পতাকা উড়িয়ে আটকালেন পঞ্চগড়গামী কাঞ্চন ট্রেনকে।

গেটম্যান আজিজুল ইসলাম বলেন, মাসুদের সংবাদ শোনার পরপরই তাৎক্ষণিকভাবে স্টেশন মাস্টারের মাধ্যমে এ বার্তাটি পাঠান রেলের ট্রাফিক কন্ট্রোলারের কাছে। পরে এ পথে ট্রেন চলাচল সাময়িক সময়ের জন্য বন্ধ করা হয়। কিছুক্ষণ পরে ভাঙ্গা স্থান মেরামত করে পুনরায় রেল চলাচল স্বাভাবিক হয়।

নবম শ্রেনির শিক্ষার্থী মাসুদ রানা বলেন, বিকেলে রেললাইন দিয়ে হেঁটে যাওয়ার সময় রেললাইন ভাঙা দৃশ্য চোখে পড়ে। তখন আমি খুবই বিমর্ষ ও আতঙ্কিত হয়ে পড়েছিলাম। কারণ বাড়ির পাশে রেললাইন হওয়ায় আমি জানতাম একটু পরেই চলে আসবে ট্রেন। তাই বন্ধুদের সহায়তায় পাশের একটি বাড়ি থেকে লাল উড়না এনে রেলের দু পাশে ধরে থাকি। পরে গেটম্যানকে জানালে তিনিসহ লাল পতাকা উড়িয়ে কাঞ্চন ট্রেনকে থামাতে সক্ষম হই। এই কাজ করতে পেরে রেল কর্তৃপক্ষ ও স্থানীয় এলাকার মানুষদের কাছ থেকে প্রশংসা পাচ্ছি। খুব ভালো লাগছে।

ঠাকুরগাঁও রেলওয়ের সাব এসিট্যান্ট ইঞ্জিনিয়ার আব্দুল মতিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, রেললাইনের জয়েন্ট প্রায় ৮ ইঞ্চি ভেঙ্গে যাওয়া লাইন দিয়ে ট্রেন চলতে গেলে দুর্ঘটনার সম্ভাবনা ছিল। স্থানীয় কিশোর মাসুদের বুদ্ধিমত্তায় বড় ধরনের দুর্ঘটনা থেকে ট্রেন রক্ষা পেল বলেও জানান তিনি।