দিনে নারীপুজো এবং রাতে তাদেরই গণধর্ষণ হয়: বীর দাস

দিনে নারীপুজো এবং রাতে তাদেরই গণধর্ষণ হয়: বীর দাস

বিনোদন

বিনোদন: সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটনের বিখ্যাত জন এফ কেনেডি সেন্টারে ‘আই কেম ফ্রম টু ইন্ডিয়াস’ নামে একটি শো করেছেন ভারতীয় কমেডিয়ান ও অভিনেতা বীর দাস।

সেখানে তিনি শ্লেষাত্মকভাবে একই ভারতের দুই রূপের কথা শুনিয়েছেন। কিন্তু এখন সেই গল্প বলার কারণেই বিজেপির রোষানলে পড়লেন এই স্ট্যান্ড-আপ কমেডিয়ান। এরই মধ্যে ওই শো’য়ের ভিডিওটি ভাইরাল হয়েছে।

সেখানে বীর দাসকে বলতে দেখা গেছে, ‘আমি ভারত থেকে এসেছি, যেখানে দিনের বেলা নারীদের (দেবী রূপে) পুজো করা হয় এবং রাতে তাদেরই গণধর্ষণ করি।’ তার এই শ্লেষাত্মক মন্তব্যে উঠে এসেছে ভারতে নারীদের প্রতি দু’মুখো ব্যবহারের প্রতিচ্ছবি। আর সেটিই যেন মেনে নিতে পারেনি বিজেপির নেতা-কর্মীরা। নেটমাধ্যমেও চলছে কটাক্ষ।

তবে অনেকে তার প্রশংসাও করছেন। এদিকে, দিল্লির তিলক মার্গ থানায় বীর দাসের বিরুদ্ধে এফআইআর করেছে বিজেপির এক নেতা। অভিযোগে বলা হয়েছে, বীর বিদেশে গিয়ে দেশকে অপমান করেছে।

মামলাকারী দিল্লি বিজেপির মুখপাত্র আদিত্য ঝা। এক টুইট বার্তায় তিনি বলেন, ‘অন্য দেশে গিয়ে আমাদের জাতিকে (ভারত) কেউ অপমান করবে, তা সহ্য করা হবে না।’ বলিউড অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাওতও বীরের উদ্দেশে টুইটারে কটাক্ষ করেছেন।

তিনি বলেন, ‘আপনি যখনই ভারতীয় পুরুষদের গণধর্ষণকারী হিসেবে তুলে ধরছেন, তার মানে বিদেশেও তাদের উৎসাহ দিচ্ছেন। আপনার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া উচিত।’ অবশ্য, নিজের বক্তব্যে ভারতের ভালো দিকগুলোও তুলে ধরেছেন বীর দাস।

তবে সমালোচনাগুলোই এখন বেশি আলোচিত হচ্ছে। এর মধ্যে ভারতের বলিউড, কৃষক আন্দোলন, করোনা টিকা, মাস্ক পরিধানসহ বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে মানুষের দ্বি-মুখিতার চিত্রও তুলে ধরেন। পরে এক টুইট বার্তায় নিজের অবস্থানও ব্যাখ্যা করেছেন এই কমেডিয়ান।

তিনি বলেন, ‘এই ভিডিয়োতে ভারতের দ্বি-মুখিতা নিয়ে শ্লেষাত্মক চিত্র তুলে ধরা হয়েছে। যে ভারতে দুই দিকই রয়েছে, ঠিক যেমনটা অন্য দেশেও থাকে। একটা অন্ধকার ও অন্যটা আলোর দিক এবং একটা ভালো ও অন্যটা মন্দ। আমরা যে মহান, তা কখনোই ভুলতে পারি না। ভিডিয়োতে সেই কথাও বলা হয়েছে।’