বীরগঞ্জে নিখোঁজের ৩দিন পর শিশুর মরদেহ উদ্ধার

দিনাজপুর

দিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুরের বীরগঞ্জে নিখোঁজের ৩দিনপর বাড়ীর পাশে টয়লেটের ট্যাংকির ভিতর হতে মোছাঃ নুসরাত নামে সাড়ে ৫বছরের এক শিশুর মরদেহ উদ্ধার।

মোছাঃ নুসরাত উপজেলার মোহনপুর ইউনিয়নের চকদফর গ্রামের মোঃ মিলন রহমান খোরশেদের মেয়ে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য দিনাজপুর এম আবদুর রহিম মেডিকেল কলেজে প্রেরণ করে। এর আগে গত মঙ্গলবার দুপুরে নিজবাড়ী হতে নিখোঁজ হয় সে।

মোহনপুর ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য মোঃ হামিদুল ইসলাম জানান, গত মঙ্গলবার দুপুরে নিজবাড়ীতে খেলার একপর্যায়ে শিশু নুসরাতকে খুঁজে পাওয়া যচ্ছিল না। পরিবারের লোকজন সম্ভাব্য সকল স্থানে খোঁজ নেওয়ার পর কোথাও না পেয়ে রাতেই এ বিষয়ে বীরগঞ্জ থানায় জিডি করেন নিখোঁজ নুসরাতের মামা মোঃ নজরুল ইসলাম।

এদিকে নুসরাতের সন্ধান চেয়ে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে মাইকিং করা হয়। এরপরও নুসরাতের সন্ধান না পাওয়ায় সন্দেহ বশতঃ বৃহস্পতিবার সকাল হতে পরিবারের লোকজন বাড়ীর আশপাশের সকলের টয়লেটের ট্যাংকির ভিতরে খোঁজ নিতে শুরু করে। এর একপর্যায়ে ওমর আলী (৫৫)নামে প্রতিবেশির রিং স্লাব দিয়ে তৈরীকৃত টয়লেটের ট্যাংকির ভিতর হতে নুসরাতের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। বিয়য়টি তাৎক্ষণিক ভাবে পুলিশকে অবহিত করা হলে পুলিশ সুরতহাল শেষে ময়না তদন্তের জন্য মৃতদেহ থানায় নিয়ে যায়। এ সময় একই এলাকার সফের আলীর ছেলে মোঃ আবদুস সালাম (২২) এবং তার স্ত্রী মোছাঃ মৌসুমী (১৯)কে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

বীরগঞ্জ থানার ওসি মোঃ আবদুল মতিন প্রধান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, প্রাথমিক তদন্তে মৃতদেহের শরীরের কোন আঘাতের চিহৃ পাওয়া যায় নি। ময়না তদন্তের জন্য মৃতদেহ দিনাজপুর এমআব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসাপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। পুলিশ ঘটনার মোটিভ উদ্ধারে কাজ শুরু করেছে। এ ব্যাপারে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ঘটনাস্থল হতে দুজনকে নিয়ে আসা হয়েছে।