চীনা টেনিস তারকা নিখোঁজ

চীনা টেনিস তারকা নিখোঁজ

খেলা

চীনের সাবেক উপপ্রধানমন্ত্রী ঝাং গাওলির বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ তুলেছিলেন টেনিস তারকা পেং শুয়াই। সেই সুয়াইকে এখন খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। ঝাং গাওলির বিরুদ্ধে যৌন হেনস্তার অভিযোগ তোলার জন্যই কি নিরুদ্দেশ হতে হল টেনিস খেলোয়াড়কে? বিশ্বের এক নম্বর টেনিস খেলোয়াড় নোভাক জকোভিচও শুয়াইকে নিয়ে উদ্বিগ্ন।

পেং শুয়াই নভেম্বর মাসের শুরুর দিকে টুইটারের চীনের সংস্করণ ওয়েইবোতে লিখেছিলেন যে সাবেক উপপ্রধানমন্ত্রী ঝাং গাওলি তার বাড়িতে টেনিস খেলার পরে তার সাথে যৌন সম্পর্ক করতে “বাধ্য” করেছিলেন। ৩৫ বছর বয়সী টেনিস তারকা এই পোস্টটি আপলোড করার পর দশ দিন ধরে নিখোঁজ রয়েছে। তার পরিবারের সদস্যরাও জানেন না শুয়াই কোথায়।

নোভাক জকোভিচ বলেছেন, ‘আমি এক সপ্তাহ আগে এই ঘটনাটা শুনেছিলাম। সত্যি বলতে কি, তার হঠাৎ করে নিরুদ্দেশ হয়ে যাওয়াটা আকস্মিক ঘটনা। সবচেয়ে বড় কথা, আমি তাকে আগেও টেনিস কোর্টে দেখেছি। আমি ভীষণ ভাবে চাই, ওকে খুঁজে পাওয়া যাবে। তার থেকেও বড় কথা হচ্ছে, ওকে যেন ঠিকঠাক অবস্থায় খুঁজে পাওয়া যায়। যা ঘটেছে তা সত্যিই ভয়ঙ্কর। শুয়াইকে হারানোর পর তার পরিবারের অবস্থার কথা ভাবলে আরও খারাপ লাগে।’

শুয়াইয়ের নিরুদ্দেশ হয়ে যাওয়ার ঘটনায় চিন্তিত চীনা ক্রীড়ামহলও। উইমেন টেনিস অ্যাসোসিয়েশন শুয়াইয়ের যৌন নিপীড়নের অভিযোগ তদন্তের আহ্বান জানিয়েছে। উইমেন টেনিস অ্যাসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান ও সিইও সিই স্টিভ সিমন বলেছেন, ‘চীনা রাজনীতিবিদদের বিরুদ্ধে যৌন অভিযোগ অত্যন্ত গুরুত্ব সহকারে নেওয়া উচিত। আমরা এর সুষ্ঠু তদন্ত দাবি করছি। আমাদের খেলোয়াড়দের নিরাপত্তা ও গুরুত্ব নিশ্চিত করতে হবে।’