আইপিএলে একাদশ থেকে বাদ পড়া নিয়ে মুখ খুললেন ওয়ার্নার

আইপিএলে একাদশ থেকে বাদ পড়া নিয়ে মুখ খুললেন ওয়ার্নার

খেলা

বিগত দুই মাসে মুদ্রার এপিঠ-ওপিঠ দুটোই দেখেছেন ডেভিড ওয়ার্নার। সেপ্টেম্বরে সংযুক্ত আরব আমিরাতে অনুষ্ঠিত আইপিএলের দ্বিতীয় পর্বে অধিকাংশ সময় সাইডবেঞ্চে বসে কাটিয়েছেন। এমনকি ওয়ার্নারের কাছ থেকে অধিনায়কত্বও কেড়ে নেয় সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ কর্তৃপক্ষ। এর পরের অংশটুকু ইতিহাস। অস্ট্রেলিয়ার হয়ে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের শিরোপা জিতেছেন এবং নিজে হয়েছেন টুর্নামেন্ট সেরা খেলোয়াড়।

অক্টোবরে বিশ্বকাপটাও হয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাতে। আর এই দুই মাসের মধ্যে অজি ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নারের পুরো বিপরীত চিত্র দেখলো ক্রিকেট বিশ্ব। তাইতো ওয়ার্নার বন্দনায় মেতেছেন সবাই। এবার আইপিএলের সাইডবেঞ্চে বসে থাকার বিষয়ে মুখ খুললেন অস্ট্রেলিয়ার এই ক্রিকেটার।

জানিয়েছেন, কোনো কারণ ছাড়াই তাকে একাদশ থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে। এমনকি অধিনায়কত্বও কেড়ে নেওয়ার সময়ও কোনো কারণ দেখানো হয়নি।

দ্য ইকোনোমিকস টাইমসকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ডেভিড ওয়ার্নার বলেন, ‘বছরের পর বছর ধরে আপনি যেই দলটিকে ভালোবেসে আসছেন, যখন সেই দলটি থেকে আপনাকে বাদ দেওয়া হয় এবং কোনো কারণ ছাড়াই অধিনায়কত্বও কেড়ে নেওয়া হয়, এটি কষ্টদায়ক। অবশ্য এ নিয়ে আমার কোনো অভিযোগ নেই। ভারতের সমর্থকরা সমসময়ই আমার পাশে থেকেছে। আমরা মানুষকে বিনোদন দেওয়ার জন্য খেলি।’

২০১৬ সালে ওয়ার্নারের নেতৃত্বে আইপিএলের শিরোপা জিতেছিল সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ। কিন্তু আমিরাতে অনুষ্ঠিত আইপিএলের ১৪তম আসরের দ্বিতীয় পর্বে মাত্র দুটি ম্যাচ খেলার সুযোগ পেয়েছেন তিনি। অজি ওপেনার জানিয়েছেন, আইপিএলে একাদশে সুযোগ না পেলেও নেটে ব্যাটিং নিয়ে অনেক অনুশীলন করেছেন।

তিনি বলেন, ‘আইপিএলে একাদশে জায়গা হারানোর কারণ যেটাই হোক, আমি আপনাদের জানাচ্ছি ওই সময়টায় ক্যারিয়ারের সবচেয়ে কঠোর অনুশীলন করেছি আমি। একটি দিনও বাদ দেইনি, প্রতিটি দিন অনুশীলন করেছি। নেটে আমি অনেক ভালো ব্যাটিং করেছি। সুতরাং, হ্যাঁ এটি কষ্টদায়ক হলেও আমি জানতাম যে আরও একটি সুযোগ অপেক্ষা করছে।’