নাটোরের সিংড়ায় ছাত্রলীগ নেতাকে কুপিয়ে জখম

নাটোরের সিংড়ায় ছাত্রলীগ নেতাকে কুপিয়ে জখম

রাজশাহী

নাটোরের সিংড়া উপজেলার ডাহিয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক প্রচার সম্পাদক নাইম হোসেন ও গোল-ই-আফরোজ সরকারি কলেজ ছাত্র সংসদের সহ-ক্রিয়া সম্পাদক শফিকুল ইসলাম কে কুপিয়ে জখম করেছে ছাত্রলীগ।

আহত দুই ছাত্রলীগ নেতা সিংড়া গোল-ই-আফরোজ সরকারি কলেজের অনার্স দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী। বুধবার দুপুর ২টায় কলেজ গেট এলাকায় এই হামলার ঘটনা ঘটে বলে জানা গেছে।

হামলার নেতৃত্ব দানকারী হল পৌর ছাত্রলীগের স্কুল বিষয়ক সম্পাদক মেহেদী হাসান রাফসান। এদিকে এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে কলেজ ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীদের মাঝে উত্তপ্ত ছড়িয়ে পড়ে। পরে পৌরসভার মেয়র মো. জান্নাতুল ফেরদৌস ও আ.লীগ নেতাদের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি শান্ত হয়।

সূত্রে জানা যায়, পূর্ব বিরোধের জের ধরে বুধবার দুপুরে পৌর ছাত্রলীগের স্কুল বিষয়ক সম্পাদক মেহেদী হাসান রাফসান এর নেতৃত্বে ৭ থেকে ৮জন ধারালো অস্ত্র নিয়ে কলেজ ক্যাম্পাসে প্রবেশ করে। একপর্যায়ে কলেজ ক্যাম্পাসের গেট সংলগ্ন নাসির ষ্টোর এর সামনে ছাত্রলীগ নেতা নাইম হোসেন ও শফিকুল ইসলামের উপর হামলা চালানো হয়।

ছাত্রলীগ নেতা নাইম হোসেনকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম এবং আরেক ছাত্রলীগ নেতা শফিকুল ইসলামকে পিটিয়ে আহত ফেলে রেখে যায় হামলাকারীরা। আহতদের মধ্যে নাইম হোসেনকে নাটোর সদর হাসপাতাল ও শফিকুল ইসলাম কে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

সিংড়া পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি বণী ইসলাইল বাপ্পী বলেন, মেহেদী হাসান রাফসান পৌর ছাত্রলীগের স্কুল বিষয়ক সম্পাদক। তবে অন্যায় হামলা সংগঠন মেনে নিবে না।

সিংড়া গোল-ই-আফরোজ কলেজ ছাত্র সংসদের ভিপি সজিব ইসলাম জুয়েল বলেন, বহিরাগত সন্ত্রাসী কর্র্তৃক কলেজের নিরীহ ছাত্রদের উপর হামলা দুঃখজনক। তিনি দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন।

সিংড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুর-এ-আলম সিদ্দিকী বলেন, বর্তমান পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। এই ঘটনায় লিখিত অভিযোগ দিতে বলা হয়েছে। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।