বিদেশি শ্রমিকদের জন্য সীমান্ত খুলছে থাইল্যান্ড

বিদেশি শ্রমিকদের জন্য সীমান্ত খুলছে থাইল্যান্ড

আন্তর্জাতিক

শ্রমিক স্বল্পতার কারণে প্রতিবেশী মিয়ানমার, কম্বোডিয়া ও লাওস সীমান্ত খুলে দেওয়ার পরিকল্পনা করছে থাইল্যান্ড। মঙ্গলবার এক সরকারি কর্মকর্তা এই তথ্য জানিয়েছেন। ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স এখবর জানিয়েছে।

শ্রম মন্ত্রণালয়ের পাইরট চটিকাসাথেইন জানান, অভিবাসী শ্রমিকদের টিকা, কোয়ারেন্টিন ও কোভিড-১৯ পরীক্ষা সংশ্লিষ্ট বিষয়গুলো সম্পর্কে বুধবার সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

থাইল্যান্ডে খাবার রফতানি ও রাবার উৎপাদনের মতো বৃহত্তম খাতগুলো অভিবাসী শ্রমিকদের ওপর নির্ভরশীল। কিন্তু মহামারিতে কঠোর সীমান্ত বিধি ও কোয়ারেন্টিন নীতির কারণে অভিবাসী শ্রমিকদের প্রবেশ বন্ধ ছিল।

পাইরট ধারণা করছেন, এই মুহূর্তে দেশটিতে ৪ লাখ ২০ হাজার শ্রমিক প্রয়োজন। মূলত নির্মাণ, উৎপাদন ও সী ফুড খাতে শ্রমিক স্বল্পতা রয়েছে। এই বছরের শুরুতে মহামারির প্রকোপ বেড়ে যাওয়াতে অনেক শ্রমিক নিজ দেশে চলে যান এবং এখনও ফিরে আসেননি।

যেসব শ্রমিক থাইল্যান্ডে রয়ে গেছিলেন তাদের বাবল ও সিল নীতির অধীনে কারখানায় ও নির্মাণাধীন ভবনে রাখা হয়েছিল।