ইরানের ড্রোন কর্মসূচির বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা আরোপ

ইরানের ড্রোন কর্মসূচির বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা আরোপ

আন্তর্জাতিক

ইরানের ড্রোন কর্মসূচির বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে যুক্তরাষ্ট্রের রাজস্ব-বিভাগ। দেশটির পরমাণু কর্মসূচি বিষয়ে আলোচনা ফের শুরু হওয়ার প্রাক্কালে তেহরানের ওপর জোরালো চাপ সৃষ্টি করতে এ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হলো। এক প্রতিবেদনে এমন তথ্য জানিয়েছে বার্তা এএফপি।

মার্কিন রাজস্ব-বিভাগ জানায়, ইরানের ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনীর প্রাণঘাতী অজ্ঞাতনামা বিমান যান (ইউএভি) মার্কিন বাহিনী ও উপসাগরীয় অঞ্চলে আন্তর্জাতিক শিপিং লক্ষ্য করে হামলার কাজে ব্যবহার করা হয়ে থাকে।

তারা জানায়, এসব ড্রোন হিজবুল্লাহ, হামাস ও ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীদের সরবরাহ করা হয়ে থাকে। আবার ইথিওপিয়ায় এ ড্রোন দেখা যায়। সেখানে সীমান্ত অঞ্চল অস্থিতিশীল করার ক্ষেত্রে ইরানের তৈরি এ ড্রোন হুমকি হয়ে দাঁড়িয়েছে।

ব্যক্তি পর্যায়ে সুনির্দিষ্ট করে ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সাঈদ আগাজানির ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। তিনি ইরানের বিপ্লবী গার্ডের ইউভিএ কমান্ডের নেতৃত্বে রয়েছেন।

মার্কিন রাজস্ব-বিভাগ জানায়, সৌদি আরবের একটি তেল শোধনাগারে চালানো ২০১৯ সালের ড্রোন হামলার পাশাপাশি ওমান উপকূলে একটি বাণিজ্যিক জাহাজে ২০২১ সালের ২৯ জুলাইয়ে চালানো হামলায় আগাজানির হাত রয়েছে। এ ড্রোন হামলায় দুই ক্রু নিহত হন।

এদিকে এ নিষেধাজ্ঞার কালো তালিকায় কিমিয়া পার্ট সিভান ও ওজে পাভেজ মাদো নাভার নামের দুই কোম্পানি রয়েছে। তারা বিপ্লবী গার্ডের আর্মড ইউএভি তৈরি করতে সহযোগিতা করে এবং সরঞ্জামাদির যোগান দিয়ে থাকে।