পররাষ্ট্রমন্ত্রী

রোমানিয়া ও সার্বিয়ায় শ্রমবাজার বৃদ্ধি করতে চায় সরকার

জাতীয়

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন জানিয়েছেন, রোমানিয়া ও সার্বিয়ায় শ্রমবাজার সম্প্রসারিত করতে চায় সরকার। ইতোমধ্যে বাংলাদেশের কিছু কর্মী দেশ দুটিতে গেছে এবং আরও কিছু শ্রমিক যাওয়ার অপেক্ষায় আছে। তবে ইউরোপের দেশ দুটি সরকারিভাবে জনশক্তি পাঠানোর জন্য আগ্রহী।

সম্প্রতি রোমানিয়া ও সার্বিয়া সফরে গিয়েছিলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। এ প্রসঙ্গে বৃহস্পতিবার (১৪ অক্টোবর) পররাষ্ট্র ভবনে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন তিনি।

মন্ত্রী বলেন, ‘রোমানিয়ায় এখন প্রায় ৪০ হাজার শ্রমিক প্রয়োজন। কারণ দেশটির নাগরিকরা ইউরোপের অন্য দেশে পাড়ি জমাচ্ছে। তাদের তথ্যপ্রযুক্তি, নির্মাণকাজ, প্লাম্বার, ইলেক্ট্রিশিয়ানসহ অন্যান্য পেশার জনবল দরকার। তবে তারা নিয়মতান্ত্রিকভাবে কর্মী নিতে চায়।’

রোমানিয়ায় প্রায় একহাজার বাংলাদেশির চাকরি হয়েছে উল্লেখ করেন ড. এ কে আব্দুল মোমেন। তবে ৩০০ কর্মী ভিসার আবেদন করেও পাচ্ছেন না। এ প্রসঙ্গে মন্ত্রীর বক্তব্য, ‘আমার সঙ্গে রোমানিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রীর আলাপ হয়েছে। তিনি আমাকে জানিয়েছেন, দিল্লিতে তাদের মিশন থেকে একটি কনস্যুলার দল ঢাকায় এসে ভিসা দেবে।’

নন-অ্যালাইনমেন্ট মুভমেন্ট (ন্যাম) সম্মেলনে যোগ দিতে সার্বিয়া গিয়েছিলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। তার তথ্যানুযায়ী, সার্বিয়া অনেক বড় একটি প্রকল্প হাতে নিয়েছে, কিন্তু সেখানে জনশক্তি কম। ইতোমধ্যে তারা কিছু কর্মী নিয়েছে যারা মাসে ৫০০ ডলার বেতন পাচ্ছে এবং তাদের থাকা-খাওয়া ফ্রি।

সার্বিয়ায় কর্মী পাঠানোর জন্য একটি চুক্তির প্রয়োজন হবে জানিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘সরকারিভাবে লোক নিতে চায় দেশটি।’