ধর্মীয় আহবে কুমারী পূজা অনুষ্ঠিত

ধর্মীয় আহবে কুমারী পূজা অনুষ্ঠিত

দিনাজপুর

দিনাজপুর সংবাদাতাঃ মহাষ্টমী মানেই কুমারী পূজা। দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে গতকাল বুধবার শারদীয় দূর্গোৎসবের মহাষ্টমীতে বর্ণিল ধর্মীয় আবহে, আনন্দ উদ্দীপনা ও জাঁকজমকপূর্ণভাবে অনুষ্ঠিত হয়েছে কুমারী পূজা।

সকাল সাড়ে ৯টায় ফুলবাড়ী রামকৃষ্ণ সেবা আশ্রমে সঞ্জিব কুমার চক্রবর্তী সফলভাবে কুমারী পূজা সম্পন্ন করেন। এ সময় ভক্তদের পদচারণায় মুখরিত হয়ে ওঠে রামকৃষ্ণ সেবা আশ্রম প্রাঙ্গণ।

কুমারী পূজায় মায়ের আসনে বসানো হয়েছিল স্থায়ীয় ফুলবাড়ী আদর্শ বিদ্যাপীঠের প্রথম শ্রেণির শিক্ষার্থী স্পৃহা চক্রবর্তী অথৈকে। আট বছর বয়সী অথৈ ‘কুব্জিকা’ নামে পূজিত হয়েছে। অথৈ ফুলবাড়ী পৌরএলাকার শিক্ষক দম্পত্তি সঞ্জিব কুমার চক্রবর্তী ও লিনা মূখার্জীর কন্যা।

জানা যায়, সকালে দুর্গাদেবীর মহাষ্টমী বিহিত পূজা প্রশস্তা ও ব্রতোপবাস অনুষ্ঠিত হয়। চ-ী ও মন্ত্রপাঠের মাধ্যমে দেবীকে আসন, বস্ত্র, নৈবেদ্য, স্নানীয়, পুষ্পমাল্য, চন্দন, ধূপ ও দীপ দিয়ে পূজা করা হয়। পূজা শেষে মায়ের চরণে পুষ্পাঞ্জলি দেন ভক্তরা। মহাষ্টমীতে কুমারী বালিকা স্পৃহা চক্রবর্তী অথৈ এর মধ্যে শুদ্ধ নারীর রূপ চিন্তা করে তাকে দেবী জ্ঞানে পূজা করেন ভক্তরা।

ধর্মীয় আহবে কুমারী পূজা অনুষ্ঠিত

কুমারী পূজায় পুরোহিত সঞ্জিব কুমার চক্রবর্তী উপস্থিত পূজার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, কুমারী আদ্যাশক্তি মহামায়ার প্রতীক। দুর্গার আরেক নাম কুমারী। মূলত নারীকে যথাযথ মর্যাদায় অধিষ্ঠিত করতে কুমারী পূজা করা হয়। মাটির প্রতিমায় যে দেবীর পূজা করা হয় তারই বাস্তব রুপ কুমারী পূজা। কুমারীতে সমগ্র্র জাতির শ্রেষ্ঠ শক্তি, পবিত্রতা, সৃজনী ও পালনী শক্তিসহ সব কল্যাণী শক্তি সূক্ষ্মরূপে বিরাজিত। কুমারী প্রতীকে জগৎ জননীর পূজায় পরম সৌভাগ্য লাভ হয়। এ রূপ কুমারী সমগ্র জগতের বাক্যস্বরূপা, বিদ্যাস্বরূপ। তিনি এক হাতে অভয় ও অন্যহাতে বর দেন।’

উল্লেখ্য, মহাঅষ্টমীর দিন মানবকল্যাণের জন্য ১ থেকে ১৬ বছরের কুমারী কন্যাকে মনোনীত করা হয়। বয়সভেদে নাম হয় ভিন্ন। এক বছর বয়সে সন্ধ্যা, দুইয়ে সরস্বতী, তিনে ত্রিধামূর্তি, চারে কালিকা, পাঁচে সুভগা, ছয়ে উমা, সাতে মালিনী, আটে কব্জিকা, নয়ে অপরাজিতা, দশে কালসন্ধর্ভা, এগারোয়া রুদ্রানী, বারোয় ভৈরবী, তেরোয় মহালক্ষ্মী, চৌদ্দয় পীঠনায়িকা, পনোরয় ক্ষেত্রজ্ঞা এবং ষোল বছরে অম্বিকা বলা হয়। সে অনুযায়ী স্পৃহা চক্রবর্তী অথৈ কব্জিকা।