টাঙ্গাইলে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনার সময় পরিবহন শ্রমিকদের হামলায় আহত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট

টাঙ্গাইলে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনার সময় শ্রমিকদের হামলায় আহত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট

জাতীয়

টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনার সময় পরিবহন শ্রমিকদের হামলায় আহত হয়েছেন উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আব্দুল্লাহ আল রনী। হামলায় তার নাক কেটে রক্ত বের হয়। ঘটনার পর উপজেলা প্রশাসন, পুলিশ ও শ্রমিক পরিবহন নেতাদের সঙ্গে বৈঠকে শ্রমিক নেতারা ক্ষমা প্রার্থনা করলে তাদের ক্ষমা করে দেওয়া হয়।

মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) দুপুরে ভূঞাপুর বাসস্ট্যান্ড এলাকায় সড়ক ও পরিবহন আইনে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করতে গিয়ে হামলার শিকার হন তিনি। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ভূঞাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল ওহাব মিয়া।

এ ঘটনায় দুই পরিবহন শ্রমিককে ৭দিনের কারাদণ্ড অনাদায়ে ৫ হাজার টাকা অর্থদণ্ড প্রদান করা হয়। দণ্ডপ্রাপ্তরা হল, ঘাটাইল উপজেলার আনেহলা ইউনিয়নের যুগিহাটী গ্রামের মৃত মজিদ মন্ডলের ছেলে হারুনুর রশিদ (৪০) ও উপজেলা কাগমারী পাড়ার ইকেন আলীর ছেলে মানিক। এদিকে শ্রমিকদের জেল-জরিমানার ঘটনায় পরিবহন শ্রমিকরা বিক্ষুব্ধ হয়ে গাড়িগুলো এলোপাথারি করে সড়ক অবরোধ করে রাখে। পরে ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

ওসি আব্দুল ওহাব মিয়া জানান, মঙ্গলবার উপজেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বাসস্ট্যান্ড এলাকায় পুলিশ সদস্যদের নিয়ে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করতে গেলে শ্রমিকরা ম্যাজিস্ট্রেটের উপর হামলা করে। এতে ম্যাজিস্ট্রেটের নাক ফেটে রক্ত বেরিয়ে পড়ে। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেয়। এর আগে ওই ম্যাজিস্ট্রেট দুই পরিবহন শ্রমিককে জরিমানা অনাদায়ে কারাদণ্ড প্রদান করলে শ্রমিকরা উত্তেজিত হয়ে তার উপর হামলা চালায়।

তিনি আরও জানান, এ ঘটনার পরই উপজেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন ও শ্রমিক পরিবহন নেতাদের সঙ্গে উপজেলা নির্বাহীর কার্যালয়ে বৈঠক করে বিষয়টি সমাধান করা হয়। পরে শ্রমিক নেতারা ইউএনও ও ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করলে তাদের ক্ষমা করে দেওয়া হয়।

হামলার শিকার নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আব্দুল্লাহ আল রনী এই বিষয়ে কোন মন্তব্য করতে রাজি হয়নি।