জোড়া লাগানো সেই যমজ শিশুর মৃত্যু

রাজশাহী

নওগাঁর পোরশা উপজেলায় জোড়া লাগা যমজ নবজাতক মারা গেছে।

রোববার বিকালে উপজেলার একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থেকে তাদের মৃত্যু হয়।

এর আগে ২ অক্টোবর উপজেলার সারাইগাছী বাজারে একটি বেসরকারি হাসপাতালে অস্ত্রোপচারে মাধ্যমে তাদের জন্ম হয়। জন্মের ৯ দিন পর তাদের মৃত্যু হলো। শিশু দুটির বাবা জাহাঙ্গীর আলম উপজেলার গাঙ্গুরিয়া গ্রামের বাসিন্দা। তিনি পেশায় একজন ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী।

যমজ শিশুর বাবা জাহাঙ্গীর আলম জানান, শিশু দুটির হাত, পাঁ, চোখ, নাক, কান ও মুখ ঠিক থাকলেও বুক ও পেট জোড়া লাগা অবস্থায় জন্মগ্রহণ করে। জন্মের পর শিশু দুটির জন্ডিস দেখা দিয়েছিল।

উন্নত চিকিৎসার জন্য তাদের রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসক বলেন, এক বছর পর অপারেশনের মাধ্যমে তাদের আলাদা করা যাবে।

এর পর তাদের ফিরিয়ে এনে স্থানীয় ইসলামী ল্যাব অ্যান্ড হাসপাতালে ভর্তি করি। সেখানেই চিকিৎসাধীন তাদের মৃত্যু হয়।