দিনাজপুরের একজন উদ্যোক্তার সফলতার গল্প

দিনাজপুর

দিনাজপুর সংবাদাতাঃ নারীর জাগরনে ও নারী পুরষ সমান অধিকার নিশ্চিতের মাধমে বাংলাদেশের উন্নয়নের অগ্রযাত্রায় নারীরা এখন এগিয়ে যাচ্ছে। নারী উদ্যোক্তা তনিমা দেব তারই একটি দৃষ্টান্ত। তনিমা দেব জানায় গল্প থেকে জানা যায় ছোট বেলা থেকেই তার ইচ্ছা ছিল নিজের পায়ে দাড়িয়ে কিছু করার । নারী হয়ে জন্মেছি তাই পরিবারিক অনেক বাধা বিপত্তি ছিল,কিন্তু হাল ছাড়িনি ।

এক পর্যায়ে কাপড় সেলাই ও এর ডিজাইনের কাজ শেখার প্রতি আগ্রহ বাড়ে । বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি ট্রেনিং গুলোতে অংশ নিতে থাকি। বাবা-মা আর একদিকে প্রতিবেশী সকলের নজরের মধ্যে পর্যায়ক্রমে পথ কঠিন হতে থাকে তারপরও কোন প্রকার পিছুটানে সাড়া দেয়নি সে এমন টাই দাবী জানান তনিমা দেব।

এক পর্যায়ে দিনাজপুরের উদ্যোক্তাবর্গের এডমিন সম্পা দাস মৌ এর সহযোগিতায় অনলাইনে বিজসেন শুরু করে তনিমা। অনলাইন প্লাটফর্মে অন্যান্য অনুসরন করে ধীরে ধীরে সে অনলাইনে কাপড় বিক্রেতা হিসেবে জনপ্রিয় হয়ে ওঠে। উদ্দ্যেক্তা তনিমা দেব এর সফলতার গল্পে আরেক সংযোজন যাত্রা শুরু করল।

দিনাজপুরের নবাবগঞ্জ উপজেলার আফতাবগঞ্জ বাজারে সেই তনিমা দেব এর ব্যাক্তিগত কাপড়ের দোকান উদ্বোধন করলেন প্রধান অতিথি স্বপ্নপুরী এর স্বত্তাধীকারী আলহাজ্জ মোঃ দেলোয়ার হোসেন। এসময় প্রধান অতিথি বলেন বর্তমান সরকারের আমলে নারী জাগরনের একটি উদাহরন তনিমা দেবের তমা ফ্যাশন এন্ড বুটিকস্।

“দিনাজপুরের উদ্যোক্তাবর্গ” গ্রুপের পরিচালক সম্পা দাস মৌ বলেন, একজন নারী হয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যেভাবে দেশকে এগিয়ে যাচ্ছেন এটাই নারীদের জন্য বিশেষ অনুপ্রেরনা। তাই আজ নারীরা এগিয়ে যাচ্ছে এবং নিজের পায়ে দাঁড়িয়ে স্বামী ও পরিবারকে সহায়তা করছে।

সম্প্রতি করোনায় দেশের অর্থনৈতিক চাকা অনেকটা স্থবির হয়ে পড়লেও নারীরা অনলাইনে বিজনেস এর মাধ্যমে দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে অবদান রেখেছে। তনিমা দেবের স্বামী লিমন রায় বলেন, প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা নারীদের নিয়ে যে চিন্তা-ভাবনা করছেন তনিমা দেবের সাবলম্বি হওয়ার উত্থান তারই বহিঃপ্রকাশ।