অবশেষে লিভারপুলকে রুখে দিল ব্রেন্টফোর্ড

অবশেষে লিভারপুলকে রুখে দিল ব্রেন্টফোর্ড

খেলা

স্পোর্টস: দুইবার এগিয়ে গিয়েও জেতা হলো না লিভারপুলের। উজ্জীবিত ফুটবলে প্রতিবারই সমতা ফেরাল ৭৪ বছর পর ইংল্যান্ডের শীর্ষ লিগে ফেরা ব্রেন্টফোর্ড। রোমাঞ্চকর লড়াইয়ে ইয়ুর্গেন ক্লপের দলকে রুখে দিল তারা।

ব্রেন্টফোর্ডের মাঠে শনিবার প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচটি ৩-৩ গোলে ড্র হয়েছে। ম্যাচে ৬৭ শতাংশ সময় বল দখলে রেখে গোলের জন্য ১৬টি শট নেয় লিভারপুল, যার ৬টি লক্ষ্যে। নবাগত ব্রেন্টফোর্ডের ১২ শটের ৪টি লক্ষ্যে ছিল।

আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণে শুরুতেই জমে ওঠে ম্যাচ। প্রথম ১০ মিনিটে গোল হতে পারত দুটি। দুই দলই বেঁচে যায় রক্ষণের দৃঢ়তায়। সপ্তম মিনিটে দিয়োগো জটার থ্রু বল ধরে ডি-বক্সে ঢুকে এগিয়ে আসা গোলরক্ষকের দুই পায়ের ফাঁক দিয়ে বল পাঠান মোহামেদ সালাহ।

ডাইভ দিয়ে শেষ মুহূর্তে গোললাইন থেকে বল ফেরান ব্রেন্টফোর্ডের ডিফেন্ডার ক্রিস্তোফের আয়ের। তিন মিনিট পর ডি-বক্সে ঢুকে চিপ শটে আলিসনকে ফাঁকি দেন স্বাগতিক ফরোয়ার্ড ব্রায়ান এমবিউমো। কিন্তু গোললাইন থেকে ফেরান লিভারপুল ডিফেন্ডার জোয়েল মাতিপ।

২৭তম মিনিটে এগিয়ে যায় ব্রেন্টফোর্ড। ডান দিক থেকে সতীর্থের বাড়ানো বলে ব্যাকহিল ফ্লিক করেন ইভান টনি। দূরের পোস্টে বাঁ পায়ের টোকায় জাল খুঁজে নেন অরক্ষিত ইথান পিনক। তাদের এগিয়ে যাওয়ার আনন্দ অবশ্য বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়নি।

তিন মিনিট পরই সমতায় ফেরে লিভারপুল। সালাহ পাস দেন জর্ডান হেন্ডারসনকে। অধিনায়কের ক্রসে ছয় গজ বক্সের মুখে হেডে বল জালে পাঠান জটা। বিরতির আগে এগিয়ে যেতে পারত লিভারপুল। ডি-বক্সের বাইরে থেকে কার্টিস জোন্সের শট প্রতিপক্ষের একজনের পায়ে লেগে পোস্টে বাধা পায়।

ফিরতি বলে কাছ থেকে জটার প্রচেষ্টা দারুণ দক্ষতায় ফেরান গোলরক্ষক দাভিদ রায়া। ৫৪তম মিনিটে এগিয়ে যায় সফরকারীরা। ফাবিনিয়োর ক্রসে কাছ থেকে গোলরক্ষককে ফাঁকি দেন সালাহ। লাইন্সম্যান শুরুতে অফসাইডের পতাকা তুললেও ভিএআরে পাল্টায় সিদ্ধান্ত। লিভারপুলের হয়ে প্রিমিয়ার লিগে এটি সালাহর শততম গোল। দলটির ১৩তম খেলোয়াড় হিসেবে ইংল্যান্ডের শীর্ষ লিগে এই মাইলফলক স্পর্শ করলেন তিনি।

এর মধ্যে সালাহসহ চার জন এটি করে দেখিয়েছেন প্রিমিয়ার লিগ নামকরণের পর। সব মিলিয়ে প্রিমিয়ার লিগে সালাহর গোল হলো ১০২টি, বাকি দুটি চেলসির হয়ে। ৬৩তম মিনিটে সমতা ফিরিয়ে লড়াই জমিয়ে তোলে ব্রেন্টফোর্ড। কাছ থেকে ইয়ানসনের প্রচেষ্টা ক্রসবারের নিচের দিকে লেগে ফেরার পর হেডে জালে পাঠান ভিটালি ইয়ানেল্ট।

অবশ্য তিন মিনিট পরই আবার এগিয়ে যায় লিভারপুল। ডি-বক্সের বাইরে থেকে জোন্সের জোরালো শটে বল এক ডিফেন্ডারের পা ছুঁয়ে জালে জড়ায়। ৭৭তম মিনিটে ব্যবধান বাড়ানোর সুবর্ণ সুযোগ হাতছাড়া করেন সালাহ। ওয়ান-অন-ওয়ানে মিসরের এই ফরোয়ার্ডের চিপ শটে বল ওপরের জালে পড়ে।

নির্ধারিত সময়ের আট মিনিট বাকি থাকতে আবারও সমতা ফেরায় স্বাগতিকরা। জটলার ভেতর বল পেয়ে কাছ থেকে আলিসনকে পরাস্ত করেন ইয়োয়ানে। একটু পর আরও একবার বল জালে পাঠায় তারা, তবে অফসাইডের কারণে গোল মেলেনি। আসরে দ্বিতীয়বার পয়েন্ট হারানো লিভারপুল ৬ ম্যাচে চার জয়ে ১৪ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষেই আছে।

অন্য ম্যাচে চেলসিকে ১-০ গোলে হারানো ম্যানচেস্টার সিটি ১৩ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে আছে। সমান পয়েন্ট নিয়ে তিনে চেলসি। অ্যাস্টন ভিলার বিপক্ষে ১-০ গোলে হারা ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ও এভারটনেরও ১৩ পয়েন্ট করে।