ব্যাংকের কাছে ঋণ মওকুফ চেয়ে দিনাজপুরে এক এতিম পরিবারের আকুতি

দিনাজপুর

সংবাদ সম্মেলনঃ আল আরাফা ইসলামী ব্যাংকের মহাব্যবস্থাপকের কাছে ঋণ মওকুফ চেয়ে দিনাজপুর উপশহরের এক অসহায় এতিম পরিবার সংবাদ সম্মেলন করেছে।

২৬ সেপ্টেম্বর রোববার বেলা ১২টায় দিনাজপুর প্রেস ক্লাব মিলনায়তনে এই আকুতি জানিয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছে শহরের উপশহর ৩নং ব্লকের মরহুম আবুল কালাম আজাদের সহধর্মিনী ও তার এতিম সন্তানেরা।

মরহুম আবুল কালাম আজাদের সহধর্মিনী শাহনাজ পারভীন এর পক্ষে বড় মেয়ে আফরিন আজাদ মুসকান লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন। লিখিত বক্তব্যে তারা জানান, মরহুম আবুল কালাম আজাদ একজন সাংবাদিকতা পেশাসহ চেম্বার অব কমার্সের সদস্যের পাশাপাশি শহরের বাহাদুর বাজারের গোলকুঠি রোডে একটি মুদি দোকানী ছিলেন।

২০১৯ সালে সড়ক দুর্ঘটনায় মৃত্যুবরণ করেন তিনি। এর আগে দোকানের নামে আল-আরাফা ইসলামী ব্যাংক দিনাজপুর শাখা হতে এক কোটি ২৪ লাখ ৪৩ হাজার টাকা ঋণ নেন। এই ঋণের বিপরীতে তিনি নিজের ৫টি জমির দলিল মর্টগেজ ব্যাংকের কাছে জমা দেন।

লিখিত বক্তব্যে তারা আরও জানান, আবুল কালাম আজাদ মারা যাওয়ার পর পরিবার সম্পুর্ণ পঙ্গুত্ব বরণ করে। এতিম হয়ে যায় দুই সন্তান। মুদির দোকানটিও জবর দখল করে নেয় তার স্বামীর বড় ভাই মো. ইসলাম। এই অবস্থায় পরিবার নিয়ে খেয়ে না খেয়ে দিনাতিপাত করছি আমরা। আর ব্যাংকের ঋণ পরিশোধ করার কোনরকম উপায় নেই বর্তমানে।

তারপরও ব্যাংকের মহাব্যবস্থাপকের নিকট আবেদন করেছি আমাদের অসহায়ত্বে কথা চিন্তা করে ঋণ মওকুফের জন্য। মর্টগেজের ৫টি জমি বিক্রয়ের অনুমতি প্রদানসহ মোট ৭টি জমি বিক্রয় করে এক কোটি টাকা ঋণ পরিশোধের ব্যবস্থা সম্ভব হয়েছে। বাকি ২৪ লাখ ৪৩ হাজার টাকা ঋণ সম্পুর্ণ মওকুফ করে এই এতিম পরিবারকে বাঁচাতে ব্যাংকের মহাব্যবস্থাপকের নিকট সাহায্য প্রার্থনা করেন। অন্যথায় তাদের মৃত্যু ছাড়া এই ঋণ পরিশোধের আর কোন সুযোগ নেই।

তারা আরও বলেন, ভাসুর মো. ইসলাম কর্তৃক জবরদখল কৃত আমাদের মুদির দোকানটি ফিরে পেতে ইতোমধ্যে পুলিশ হেডকোয়ার্টাসে লিখিত অভিযোগ করি। এতে পুলিশ সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে দোকান ঘরটি আমাদের কাছে ফিরিয়ে দিতে রিপোর্ট দিয়েছেন। কিন্তু দোকানটি ফিরিয়ে না দিয়ে আমার ভাসুর হয়রানী করার উদ্দেশ্যে বিজ্ঞ আদালতে মামলা করেন।

যা এখনও বিচারাধীন রয়েছে। দোকান ঘরটি ফেরত চাইলে আমার ভাসুর সন্ত্রাসীদের দ্বারা মৃত্যুর হুমকিসহ ভয়-ভীতি প্রদর্শন করছে। আমাদের অসহায় এতিম এই পরিবারটিকে রক্ষার জন্য ব্যাংকের মহাব্যবস্থাপকের কাছে ঋণ মওকুফের অনুরোধ জানান মরহুম আবুল কালাম আজাদের বিধবা স্ত্রী ও এতিম সন্তানেরা।

এছাড়াও আইন-শৃঙ্খলাবাহিনীর নিকট মুদি দোকান ঘরটি দখলমুক্ত করে পরিবারটিকে বাঁচানোর অনুরোধ জানিয়েছেন তারা। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন মরহুম আবুল কালাম আজাদের বিধবা স্ত্রীসহ তার কন্যা ও ছেলে সন্তান আবুল আসাদ স্বাদ।