Dinajpur Pic 26-05-14দিনাজপুরে মুগডাল চাষের উপর এক মাঠ দিবসে বক্তারা বলেছেন, একমুখী  ফসলের উপর নির্ভরশীল না থেকে শষ্য বিন্যাসকরন কর্মসূচীর আওতায় নানামুখী ফসল আবাদের মাধ্যমে কৃষক লাভবান হতে পারে। দেশে বর্তমান সরকার কৃষি ও কৃষকের জন্যে ফসল বহুমুখীকরনের আগ্রহ বাড়াতে বিভিন্ন ফসলের মাঠ দিবস ও সার-বীজ-কীটনাশকসহ অত্যাধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহারের উপর ব্যাপক গুরুত্ব দিচ্ছে।

গতকাল সকাল ১১টায় দিনাজপুর সদর উপজেলার ১ নং চেহেলগাজি ইউনিয়নের গোবিন্দপুর গ্রামে আরডিআরএস বাংলাদেশ দিনাজপুরের আয়োজনে স্বল্প মেয়াদী আমন-সরিষা অথবা আলু-আউশ ধান(পারিজা) শস্য বিন্ন্যাসের আওতায় মুগডাল প্রদশনীর মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত হয়।

সদর উপজেলা কৃষিকর্মকর্তা মোঃ মতলুবর রহমানের সভাপত্বি অনুষ্ঠিত শস্য বিন্ন্যাসের আওতায় মুগডাল প্রদশনী মাঠ দিবসের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আব্দুর রহমান। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা চেহেলগাজি ইউপি মোঃ আনসার আলী, আরডিআরএস রংপুরের সমন্বয়কারী সৈয়দা নওরাসম ও আরডিআরএস দিনাজপুরের কৃষিকর্মকর্তা নাজমা পারভীন।

মাঠ দিবসের আলোচনা সভার আগে প্রধান অতিথি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আব্দুর রহমান ও অন্যান্য অতিথিরা ওই গ্রামের মুগডাল আবাদের ফসল উত্তোলনের শুভ উদ্ভোধন করেন। এ সময প্রিধান অতিথি কৃষকদের ধান,গম,ভুট্টা’র পাশাপাশি অন্যাণ্য ফসল আবাদেও জন্যে সকলকে আহবান জানান।

একক ফসলের উপর নির্ভরশীলতা কমিয়ে এনে সব ধরনের চাষাবাদের প্রতি মনোযোগী হওয়ার জন্যে কাজ করতে কৃষকদেও অনুরোধ করেন এবং এতে করে তারাই লাভবান হবেন এবং দেশের অর্থনীতিতে নতুন মাত্রা যোগ হবে বলে আশা প্রকাশ করেন। বক্তারা কাজের মাধ্যমে কৃষকদের কাছে পৌছানোর এবং তাদের উন্নয়নের জন্যে সকল পর্যায়ের সহযোগীতা অব্যাহত রাখার দাবী করেন।

আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, দেশের কৃষিতে উন্নয়ন ঘটানোর লক্ষে সরকারের পাশাপাশি এনজিও গুলো কাজ কওে যাচ্ছে। এর মধ্যে আমাদের এই অবহেলিত উত্তরাঞ্চলের কৃষকদের আত্বনির্ভরশীল হয়ে গড়ে তোলার জন্যে আরডিআরএস বাংলাদেশ নিবিড় ভাবে কৃষকদের সাথে কাজ করতে সক্ষম হয়েছে বলে তাদের সফলতা কামনা করেন।

আরডিআরএস বাংলাদেশ দিনাজপুর জেলায় স্বল্প মেয়াদী আমন-সরিষা অথবা আলু-আউশ ধান(পারিজা) শস্য বিন্ন্যাসের আওতায় ২ শো জন কৃষককে উদ্ধুদ্ধ করে জেলা সদরে ৮০ বিঘা এবং বীরগঞ্জ উপজেলার কয়েকটি গ্রামে ১২০ বিঘা জমিতে মুগডালের চাষ করেছে। এতে করে কৃষকরা মুগডালের আবাদের প্রতি আর্কষিত হবে বলে আয়োজকরা আশা করছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য