বরযাত্রীর নৌকাযাত্রায় বজ্রপাতে নিহত ১৬

বরযাত্রীর নৌকাযাত্রায় বজ্রপাতে নিহত ১৬

রাজশাহী

চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জে পদ্মা নদীর পাড়ে একটি টিনের ঘরে বজ্রাঘাতে ১৭ বরযাত্রীর মৃত্যু হয়েছে। এ সময় আহত হয়েছেন ১৪ জন। বুধবার (৪ আগস্ট) দুপুর ১২টার দিকে উপজেলার চরপাঁকা ইউনিয়নের আলিনগর ঘাটে এ ঘটনা ঘটে।

বাংলা ট্রিবিউনকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন শিবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. সাকিব আল রাব্বি। তিনি বলেন, ‘লাশগুলো উদ্ধার করে সদর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসা হয়েছে। আহতদের সদর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।’

শিবগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফরিদ হোসেন বলেন, ‘সদর উপজেলার নারায়ণপুর ইউনিয়ন থেকে বর পক্ষ পাঁকা ইউনিয়নের পাঁকা গ্রামে নৌকাযোগে কনের বাড়িতে যাচ্ছিল। এ সময় বৃষ্টি শুরু হলে নদীর পাড়ের একটি টিনের চালার নিচে আশ্রয় নেন তারা। তখন বজ্রাঘাতে ঘটনাস্থলেই ১৬ জনের মৃত্যু হয়। মৃতদের মধ্যে ১২ জন পুরুষ ও চার জন নারী। আলীনগর ঘাট থেকে লাশগুলো উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।’

chapa7বরপক্ষ পাঁকা ইউনিয়নের পাঁকা গ্রামে নৌকাযোগে কনের বাড়িতে যাচ্ছিল

চাঁপাইনবাবগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের স্টেশন অফিসার মো. মেহেরুল ইসলাম বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘এ পর্যন্ত ১৬ জনের লাশ উদ্ধার করেছি। ১৪ জনকে জীবিত উদ্ধার করে সদর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘বউভাতের অনুষ্ঠানে যাচ্ছিলেন ৪০ জন বরযাত্রী। বজ্রাঘাতে ঘটনাস্থলেই ১৬ জনের মৃত্যু হয়। অন্যরা সুস্থ আছেন বলে স্বজনরা আমাদের জানিয়েছেন।’

চাঁপাইনবাবগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের উপ-সহকারী পরিচালক মো. ছাবের আলী প্রামাণিক বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘৪০ বরযাত্রী ছিলেন। ১৬ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ১৪ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বাকি ১০ জন সুস্থ আছেন। কেউ নিখোঁজ নেই।’

এদিকে ১৬ জন নিহতের ঘটনায় জেলাজুড়ে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। এই দূর্ঘটনায় হতভম্ব হয়েছেন জেলার সর্বস্থরের মানুষ। আরো হতভম্ব হয়েছেন জেলা ও উপজেলা প্রশাসনগণ এবং জনপ্রতিনিধিগণ। বুধবার দুপুর পৌনে ১২টার দিকে শিবগঞ্জ উপজেলার পাঁকা ইউনিয়নের পদ্ম নদীর দক্ষিণপাঁকা ঘাটে এই ঘটনা ঘটে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জে বজ্রপাতে মৃত ১৬ জনের পরিবারকে ২৫ হাজার টাকা করে আর্থিক সহায়তা পাচ্ছে। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে মরদেহ দাফনে এ সহায়তা দেওয়া হচ্ছে। শিবগঞ্জ উপজেলা প্রশাসন বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য