অলিম্পিক টেনিস শ্রেষ্ঠত্ব আর থাকছে না মারের

অলিম্পিক টেনিস: শ্রেষ্ঠত্ব আর থাকছে না মারের

খেলা

একদিনে দুই তারার পতন! একজন কোর্টের লড়াইয়ে হেরেছেন, অন্যজন চোটের সঙ্গে লড়ে হেরেছেন। প্রথমজন মেয়েদের এককের নাম্বার ওয়ান অ্যাশলি বার্টি, আর দ্বিতীয়জন অ্যান্ডি মারে। আগের দুই অলিম্পিকে ছেলেদের এককের সোনা জয়ী এই স্কটিশ নাম প্রত্যাহার করে নিয়েছেন টোকিও অলিম্পিক থেকে।

ব্রিটেনের সোনার স্বপ্নে বড় ধাক্কা। ২০১২ সালের লন্ডন অলিম্পিকের পর ২০১৬ সালের রিও অলিম্পিকে ছেলেদের এককের শিরোপা জিতেছিলেন মারে। এবারের টোকিও অলিম্পিকেও তাকে ঘিরে স্বপ্ন ছিল গ্রেট ব্রিটেনের। কিন্তু কোর্টেই নামতে পারছেন না মারে। ঊরুর চোটে আগেই ছেলেদের একক থেকে নাম প্রত্যাহার করে নিয়েছেন তিনি।

ঊরুর চোট খুব একটা গুরুতর নয়। হালকা হলেও চিকিৎসকদের পরামর্শে একক থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন টানা দুই অলিম্পিকে সোনা জয়ী তারকা। সংখ্যাটা টানা তিন করতে চাইলেও সেটি হচ্ছে না। ফলে অলিম্পিক শ্রেষ্ঠত্বও আর থাকছে না মারের কাছে। একক থেকে সরে দাঁড়ালেও টোকিও অলিম্পিকে ছেলেদের দ্বৈতে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন। জো সালিসবুরির সঙ্গে জুটি বেঁধে ইতিমধ্যে দ্বৈতের দ্বিতীয় রাউন্ডে উঠেছেন মারে।

মূলত চিকৎসকরা টোকিও অলিম্পিকে যেকোনও একটি ইভেন্ট খেলার পরামর্শ দেওয়া মারে দ্বৈত বেছে নিয়েছেন। টোকিও অলিম্পিকের একক থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়ে মারে বলেছেন, ‘অবশ্যই আমি হতাশ। তবে মেডিক্যাল টিম আমাদের দুটো ইভেন্ট না খেলার পরামর্শ দিয়েছেন। একক থেকে সরে দাঁড়ানোটা আমার জন্য কঠিন সিদ্ধান্ত ছিল। এখন আমি জোয়ের সঙ্গে দ্বৈতে নজর নিচ্ছি।’

২০১৬ সালে রিও অলিম্পিক থেকে সোনা জেতার পর নিতম্বে অস্ত্রোপচার হয় মারের। এরপর লম্বা সময় ছিলেন টেনিসের বাইরে।র