ঠাকুরগাঁওয়ে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত-৪ : আহত ২, আটক-১

ঠাকুরগাঁওয়ে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত-৪ : আহত ২, আটক-১

রংপুর

ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার আউলিয়াপুর ইউপির বোর্ড অফিস নামক স্থানে ২ ট্রাকের চাপায় পিষ্ট হয়ে অটোচার্জারের ৩ যাত্রি নিহত হয়। এ ঘটনায় আরও ২ ব্যক্তি আহত হন।

বৃহস্পতিবার দুপুরে বোর্ড অফিস বাজারের মহাসড়কে উপরের অটো স্ট্যান্ডে এ দুর্ঘটনা ঘটে। এর আগে গত বুধবার সন্ধায় আরও একটি সড়ক দুর্ঘটনায় আতাউর রহমান সুইট (৪০) নামে এক ব্যক্তি রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল বৃহস্পতিবার মারা যান।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ঠাকুরগাঁও থেকে একটি বড় ট্রাক পঞ্চগড়ের দিকে যাচ্ছিল। এ সময় বাজারের পূর্ব পাশ্বের রাস্তা দিয়ে আরও একটি ট্রাক পাকা রাস্তায় উঠলে সংঘর্ষ হওয়ার উপক্রম হলে ট্রাকটি অটো স্ট্যান্ডের দিকে চাপানোর চেষ্টা করে। এ সময় দুটি ট্রাকই যাত্রী নিতে থাকা অটো চার্জারটিকে চাপা দেয়। এ সময় অটো চার্জারটি দুমড়ে যায়।

এ ঘটনায় অটো চার্জার চালক মোস্তফা ওরফে মস্তু (৪৫), যাত্রী মজিবর রহমান (৫৭) ও সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় চঞ্চল (৪২) নামে আরও একজন মারা যান। মোস্তফা সদর উপজেলার কচুবাড়ী গ্রামের সুরত আলীর ছেলে, চঞ্চল একই গ্রামের বীরেন চন্দ্রের ছেলে এবং মজিবর রহমান সদর উপজেলার শিংপাড়া গ্রামের মাতব্বর আলীর ছেলে। বাহারু (৪৫) নামে এক অটো চার্জার যাত্রীকে গুরুতর আহত অবস্থায় আধুনিক সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করে।

আরও একজন যাত্রী আহত হয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন। ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্সের সদস্যরা ঘটনাস্থলে গিয়ে নিতহদের লাশ উদ্ধার করে ও আহতদের সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। সংঘর্ষে জড়িত ট্রাক ২টি ও দুমড়ে মুচড়ে যাওয়া অটো চার্জারটিকে হাইওয়ে পুলিশ জব্দ করে নিয়ে যায়।

অপরদিকে বুধবার সন্ধায় সদর উপজেলার মথুরাপুর নামক স্থানে গরুর সাথে সংঘর্ষে মটরসাইকেল আরোহী আতাউর রহমান সুইট গুরুতর আহত হন। তাৎক্ষনিক তাকে প্রথমে সদর হাসপাতাল ও অবস্থার অবনতি হলে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে তিনি মারা যান। সুইট পৌর শহরের আশ্রমপাড়া মহল্লার সফিউদ্দিন আহমেদের ছেলে। তিনি সাবেক ছাত্রনেতা ছিলেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য