দিনাজপুরে করোনায় আজ আবার ৩ জনের মৃত্যু, নতুন আক্রান্ত ১৩৮

দিনাজপুর

দিনাজপুর সংবাদাতাঃ সারাদেশে ব্যাপী লকডাউনের ১৩ দিনে দিনাজপুরে করোনায় ১৩৮ জন আক্রান্ত ও ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। করোনায় আক্রান্তদের মধ্যে ১২৬ জনকে রেড জোনে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অপর ১২ জনকে স্বাস্থ্য বিভাগের অধিনে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। আক্রান্তের হার ২৯ দশমিক ৭৪ ভাগ। মঙ্গলবার করোনায় আক্রান্ত হয়ে দিনাজপুর সদর, নবাবগঞ্জ ও চিরিরবন্দর উপজেলায় ১ জন করে ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে।

দিনাজপুর সিভিল সার্জন ডাঃ আব্দুল কুদ্দুস আজ মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৩টায় তার কার্যালয়ে প্রেস ব্রিফিংকালে জানান, গত ২৪ ঘন্টায় ১৩৮ জন পরীক্ষায় তাদের শরীরে করোনা পজেটিভ তথ্য পাওয়া গেছে। এদের মধ্যে ১২৬ জনকে রেড জোনে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়েছে।

গত ২৪ ঘন্টায় ৬১৭টি নমুনা সংগ্রহ করে ৪৬৪ জনের নমুন পরীক্ষা করে ১৩৮ জনের শরীরে করোনা পজেটিভ পাওয়া গেছে। বর্তমানে জেলায় ২ হাজার ১৩১ জন করোনা আক্রান্ত রেড জোনে চিকিৎসাধীন রয়েছে। তাদের মধ্যে ২৬৭ জনকে গুরুতর অবস্থায় রেড জোনে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। গত ২৪ ঘন্টায় ৪৩৪ জনকে নতুন করে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। এসময়ের মধ্যে ১৪০ জনকে কোয়ারেন্টাইন থেকে মুক্তি দেয়া হয়েছে। বর্তমানে হোম আইসোলেশন স্বাস্থ্য বিভাগের ২ হাজার ৫ জনকে রাখা হয়েছে। এপর্যন্ত জেলায় ৬৬ হাজার ৬৩৯ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এরমধ্যে ৫৫ হাজার ২৮৭ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার জেলায় নতুন আক্রান্ত ১৩৮ জনের মধ্যে সদর উপজেলাতেই ৬১ জন। এছাড়া বিরলে ৩ জন, বিরামপুরে ৪জন, বীরগঞ্জে ১০ জন, বোচাগঞ্জে ৬ জন, চিরিরবন্দরে ৭ জন, কাহারোলে ১ জন, ফুলবাড়ী ১৯ জন, খানসামায় ১৫ জন, নবাবগঞ্জে ৪ জন ও পার্বতীপুর উপজেলায় ৮ জন।

এপর্যন্ত জেলায় করোনায় ১৯৭ জন মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে সদর উপজেলায় ১০২, বিরলে ১১ জন, বিরামপুরে ১২ জন, বীরগঞ্জে ৭ জন, বোচাগঞ্জে ৬ জন, চিরিরবন্দরে ১৬ জন, ফুলবাড়ীতে ১১ জন, হাকিমপুরে ৪ জন, কাহারোলে ৬ জন, খানসামায় ৫ জন, নবাবগঞ্জে ৫ জন ও পার্বতীপুর উপজেলায় ১২ জন।

অপরদিকে দিনাজপুর শহরে করোনা সংক্রামণ বৃদ্ধি পাওয়ায় শহরের সরকারী কলেজ মোড়, উপশহর, মুন্সিপাড়া, চাউলিয়াপট্টি শহীদ মিনার মোড়, চাউলিয়াপট্টি বেড়ীবাধ মোড়সহ বিভিন্ন স্থানে যানবাহন ও পথচারীর চলাচল নিয়ন্ত্রনে রাস্তার উপর বাঁশ বেধে ব্যারিকেট দিয়ে রাস্তা বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। পুলিশ, সেনাবাহিনী, বিজিবি, র‌্যাব ও আনসার সদস্যরা নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটের নেতৃত্বে দিনাজপুর শহর এবং ১৩টি উপজেলাতেই লডকাউনের ১৩ম দিনে কঠোর বিধি নিষেধ প্রয়োগে টহল ব্যবস্থায় নিয়োজিত রয়েছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য