টিকা

রংপুরে মঙ্গলবার গণটিকাদান শুরু

রংপুর

রংপুরে মঙ্গলবার গণটিকাদান শুরু, প্রক্রিয়া জানালেন সিভিল সার্জনমেসেজ না পেলেও টিকা নেওয়ার কথা জানিয়েছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের উৎপাদিত করোনার টিকা মর্ডানার ১২ হাজার ডোজ বিভাগীয় নগরী রংপুরে পৌঁছেছে। তবে এই ডোজ শুধু রংপুর সিটি করপোরেশন এলাকার বাসিন্দাদের (রংপুর মহানগর) দেওয়া হবে। মঙ্গলবার (১৩ জুলাই) সকাল থেকে নির্ধারিত টিকা কেন্দ্রগুলোতে মডার্নার মাধ্যমে দ্বিতীয় পর্যায়ের গণটিকাদান কার্যক্রম শুরু হবে।

সোমবার (১২ জুলাই) সকালে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জেলা সিভিল সার্জন ডা. হিরম্ব কুমার রায়।

এর আগে রোববার (১১ জুলাই) মধ্যরাতে ভ্যাকসিনবাহী বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালসের ফ্রিজার ভ্যানটি জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ে পৌঁছায়। এ সময় সিভিল সার্জনসহ স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মীরা ভ্যান থেকে ১২ হাজার ডোজের ৩টি কার্টন নামিয়ে ইপিআর স্টোরে সংরক্ষণ করেন।

টিকা নেওয়ার জন্য অনলাইনে রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন করতে হবে। নির্ধারিত দিনে নির্ধারিত কেন্দ্রে টিকা নিতে হবে। টিকা গ্রহণের কার্ড হারিয়ে গেলে কিংবা নষ্ট হয়ে গেলে অনলাইন থেকে পুনরায় প্রিন্ট করে নেওয়া যাবে।

সিভিল সার্জন ডা. হিরম্ব কুমার রায় বলেন, ঢাকা থেকে ফ্রিজার ভ্যানে পাঠানো মর্ডানার টিকার ৩টি কার্টন রংপুর পৌঁছেছে। এসব ভ্যাকসিন কোল্ড চেইন মেইনটেইন করে ইপিআর স্টোরের আইএলআর ফ্রিজে সংরক্ষণ করা হয়েছে। প্রতি কার্টনে ১২০ ভায়াল রয়েছে। প্রতি ভায়ালে ১০টি করে ডোজ রয়েছে।

জানা গেছে, যাদের বয়স ৩৫ এর নিচে তারা এ টিকা নিতে পারবেন না। আগামী ৩০ দিনের মধ্যে মর্ডানার এই ডোজ প্রদান সম্পন্ন করা হবে। রংপুর সিটি করপোরেশনের মাধ্যমে মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও সদর হাসপাতালের টিকাকেন্দ্রে টিকাদান কার্যক্রম শুরু করা হবে বলেও জানান সিভিল সার্জন।

তিনি বলেন, মর্ডানার ১২ হাজার ডোজ শেষ হলে পর্যায়ক্রমে আরও ডোজ আসবে। উপজেলা পর্যায়ে ৪০ হাজার সিনোফার্মের টিকা পাঠানো হয়েছে। এসব টিকা সোমবার থেকে প্রদান করা হচ্ছে। ইতোমধ্যে যারা নিবন্ধন করেছেন, কেবল তারাই দ্বিতীয় পর্যায়ে ডোজের টিকা নিতে পারবেন। এ ক্ষেত্রে মোবাইলে কোনো মেসেজ (এসএমএস) না পেলেও টিকা কার্ডসহ নির্ধারিত কেন্দ্রে গিয়ে টিকা নিতে পারবেন।আরও জানা যায়, টিকা নেওয়ার জন্য অনলাইনে রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন করতে হবে। নির্ধারিত দিনে নির্ধারিত কেন্দ্রে টিকা নিতে হবে।

টিকা গ্রহণের কার্ড হারিয়ে গেলে কিংবা নষ্ট হয়ে গেলে অনলাইন থেকে পুনরায় প্রিন্ট করে নেওয়া যাবে।সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্র জানায়, ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে ৫ এপ্রিল পর্যন্ত রংপুরে করোনার টিকার প্রথম ডোজ নিয়েছেন ১ লাখ ৬৪ হাজার ৭২৪ জন। দ্বিতীয় ধাপে ৯০ হাজার মানুষকে এই টিকা দেওয়া হয়েছে। বর্তমানে শিক্ষার্থীদের টিকা দেওয়ার কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে। এখন পর্যন্ত প্রায় ৬ হাজার শিক্ষার্থী টিকা নিয়েছেন।

বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালসের সহকারী বিক্রয় ব্যবস্থাপক মোহাম্মদ সিদ্দিক জানান, দ্বিতীয় পর্যায়ে টিকাদানের আওতায় রংপুর সিটি করপোরেশনসহ ১২টি মহানগরে মঙ্গলবার থেকে শুধু মডার্নার টিকা দেওয়া হবে। এই ভ্যাকসিনের তাপমাত্রার স্পর্শকাতরতার কারণে মহানগরগুলোতে মডার্নার টিকা দেওয়া হবে।তিনি বলেন, যে তাপমাত্রায় মডার্নার টিকা সংরক্ষণ দরকার, তেমন ধরনের ব্যবস্থা দেশের সব জেলা শহর বা উপজেলা পর্যায়ে নেই। মডার্নার টিকা ও সিনোফার্মের টিকার কার্যকারিতায় কোনো পার্থক্য নেই।গণটিকাদান কার্যক্রমে নিবন্ধনের বয়সসীমা কমিয়ে ৩৫ বছর করা হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য