নিজের স্পেশশিপ ইউনিটিতে চড়ে পাড়ি জমাচ্ছেন ব্রিটিশ ব্যবসায়ী রিচার্ড ব্র্যানসন

নিজের স্পেশশিপ ইউনিটিতে চড়ে পাড়ি জমাচ্ছেন ব্রিটিশ ব্যবসায়ী রিচার্ড ব্র্যানসন

আন্তর্জাতিক

ব্রিটিশ ব্যবসায়ী রিচার্ড ব্র্যানসন রোববার মহাশূন্যের দ্বারপ্রান্তে উড়ে গিয়ে তার সারা জীবনের বাসনা পূরণ করবেন।

তার কোম্পানি ভার্জিন গ্যালাকটিকের তৈরি একটি রকেট, যার নাম ইউনিটি, তাতে অন্যান্য ক্রুদের সাথে তিনি সহযাত্রী হিসেবে যোগদান করবেন।

যুক্তরাষ্ট্রের নিউ মেক্সিকো মরুভূমি থেকে দেড় ঘণ্টার এই পরীক্ষামূলক ফ্লাইট শুরু হবে।

রকেটটি ৮০ কিলোমিটার উচ্চতায় পৃথিবীর বায়ুমণ্ডল অতিক্রম করবে।

মি. ব্র্যানসন বলছেন, এই ফ্লাইটের মাধ্যমে মহাশূন্য ভ্রমণের এক নতুন অধ্যায়ের সূচনা করবে।

তবে মহাশূন্যে যারা বেড়াতে যেতে চাইবেন তাদের বেশ অর্থবান হতে হবে।

মহাশূন্যে কয়েক মিনিটের অভিজ্ঞতার জন্য প্রতিটি টিকেটের ব্যয় পড়বে আড়াই লক্ষ ডলার।

রিচার্ড ব্র্যানসনের মতোই আরেকজন বিলিওনেয়ার উদ্যোক্তা অ্যামাজনের মালিক জেফ বেজোসও এমাসের পরের দিকে তার কোম্পানির তৈরি রকেটে চড়ে মহাশূন্যে উড়ে যাবেন বলে কথা রয়েছে।

তবে মহাশূন্যে অভিযানের এই পথটি রিচার্ড ব্র্যানসনের জন্য সহজ ছিল না। মহাশূন্যে অভিযান রিচার্ড ব্র্যানসেন ছোটবেলার স্বপ্ন।

তিনি ২০০৪ সাল থেকে মহাশূন্যে বাণিজ্যিক ভ্রমণ চালু করার প্রচেষ্টা চালিয়ে আসছেন।

কথা ছিল ২০০৭ সালেই এই ভ্রমণ চালু হবে, কিন্তু রকেটে প্রাণঘাতী এক বিস্ফোরণের পর উদ্যোগটি মাঝপথে থেমে যায়।

“ছেলেবেলা থেকেই মহাকাশ ভ্রমণের শখ আমার ছিল, বিবিসিকে মি. ব্র্যানসন বলেন, আমি আশা করছি আগামী ১০০ বছরের মধ্যে লক্ষ লক্ষ মানুষ মহাশূন্যে সফর করতে পারবেন।”

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য