অশ্লীল ভিডিও

ঠাকুরগাঁওয়ে প্রেমিকার অশ্লীল ভিডিও দেখিয়ে ভেঙ্গে দিল তরুণীর বিয়ে

রংপুর

অশ্লীল ছবি ও ভিডিও ইন্টানেটে ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে ধর্ষন, বিয়ে ভেঙ্গে দেওয়া এবং মারপিট করার অভিযোগে ঠাকুরগাওয়ের পীরগঞ্জে পিতা ও ২ পুত্রের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। ঘটনার মুল নায়ক পুত্র মশিউর রহমানকে সোমবার রাতে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

পীরগঞ্জ থানার ওসি প্রদীপ কুমার রায় জানান, পীরগঞ্জ উপজেলার ভোমরাদহ গাজীপাড়া গ্রামের নইমউদ্দীনের ছেলে মশিউর একই এলাকার এক ষোড়শীর সাথে কৌশলে অনৈতিক সম্পর্ক গড়ে তোলে এবং তা মোবাইল ফোনে ধারণ করে।

মোবাইল ফোনে ধারণ করা ঐসব অশ্লীল ছবি ও ভিডিও ইন্টারনেটে ছেড়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে পরবর্তীতে ঐ ষোড়শীকে একাধিকবার ধর্ষন করে মশিউর।

এ অবস্থায় পরিবারের লোকজন ঐ ষোড়শীর অন্যত্র বিয়ে ঠিক করেন। বিয়ের খবর শুনে বরের বাড়িতে গিয়ে বর এবং তার পরিবারের লোকজনকে মোবাইলে ধারণ করা ঐ ষোড়শীর অশ্লীল ছবি ও ভিডিও দেখায় মশিউর। এতে বিয়ে ভেঙ্গে যায় ঐ ষোড়শীর।

বিষয়টি জানতে পেরে রবিবার ঐ ষোড়শীর পরিবারের লোকজন মশিউরকে আটক করে মারপিট দেয় এবং তার মোবাইল ফোন থেকে অশ্লীল ছবি ও ভিডিও উদ্ধার করে। খবর পেয়ে মশিউরের বাবা নইমউদ্দীন ও ভাই আজিজুল এসে ঐ ষোড়শীর পরিবারের লোকজনের সাথে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। পরে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের মাধ্যমে মশিউরকে পীরগঞ্জ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এ ঘটনায় ঐ ষোড়শীর পিতা বাদী হয়ে সোমবার রাতে মশিউর, নইমদ্দদীন ও আজিজুলের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করেন। পুলিশ রাতেই হাসপাতাল থেকে মশিউরকে গ্রেফতার করে এবং মঙ্গলবার জেল হাজতে পাঠায়।
এদিকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে অশ্লীল ছবি ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগে গত রবিবার ৭ জনের বিরুদ্ধে থানায় আরো একটি মামলা হলে পুলিশ ফেরদৌস নামে এক যুবককে গ্রেফতার করে জেল হাজতে পাঠিয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য