চোখ সাজাতে কাজলের ব্যবহার

চোখ সাজাতে কাজলের ব্যবহার

সাজগোজ টিপস

মেয়েদের কাছে অত্যন্ত দামী একটি জিনিস হলো কাজল। মেকআপ করুক বা না করুক, কাজল ছাড়া নারী কল্পনাই করা যায়না। খুব কম মেয়েই আছে যারা ঘর থেকে বের হোন চোখে কাজল না দিয়েই। কিন্তু প্রায়ই চোখে কাজল লাগাতে গেলে খুব অল্প সময়ের মধ্যেই পা-ার মতো চোখ হয়ে যায়। চোখের আশপাশে এলোমেলো ভাবে ছড়িয়ে ছিটিয়ে পরে কাজল।

তাই চোখ সুন্দরের পরিবর্তে আজব দেখায়। এমন অবস্থায় পা-াদের মতো চোখ থেকে মুক্তি পেতে হলে অবশ্যই কিছু নিয়ম মেনে তবেই চোখে কাজল লাগাতে হবে।

– ত্বক তৈলাক্ত হলে কাজল সারাদিন ঠিক থাকলেও দিন শেষে পা-ার মতোই হয়ে যায়। তাই কাজল লাগানোর আগে অবশ্যই মুখের তৈলাক্ত ভাব খুব ভালো করে দূর করে নিতে হবে। তার জন্য বাজারে বিভিন্ন ধরনের তেল অপসারণকারী ফেস ওয়াশ পাওয়া যায়। তবে ফেস ওয়াশ থেকে স্ক্রাব খুব ভালো কাজ করে তৈলাক্ত ভাব দূর করতে।

– চোখের ওপরে কাজল ছড়ালে বোঝা না যাওয়ার জন্য আইশ্যাডো লাগিয়ে নেওয়া যেতে পারে।

– পেন্সিল টাইপের কাজল ছড়ায় বেশি পরিমাণে, ভালো হয় তরল/লিকুইড কাজল ব্যবহার করলে। লিকুইড কাজল একবারেই স্থায়িত্ব পেয়ে যায়। তাই ছড়ানোর প্রবণতা তুলনামূলকভাবে কম।

– কখনোই চোখের ভেতরের কোণে কাজল লাগানো যাবে না। কারণ চোখের ভেতরের কোণের অংশ অনেক বেশি ভেজা থাকে, তাই কাজল খুব সহজেই ছড়িয়ে পড়তে পারে।

– কাজল লাগানোর পরে চোখের আশেপাশের স্থানে পাউডার দিয়ে নিতে হবে। পাউডার লাগানো হলে ত্বক একটুও তৈলাক্ত হলে সেটা শুকিয়ে যাবে।

– কাজল অবশ্যই ভালো মানের হতে হবে। কখনোই খারাপ কোনো প্রসাধনী ব্যবহার করা যাবে না। কাজল খারাপ মানের হলে অনেক সময় গুড়ো গুড়ো হয়ে চোখের আশপাশে ছড়িয়ে ছিটিয়ে পড়ে। যা পুরো মুখকেই খারাপ করে দেয়।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য