টিকা

টিকা সংকটের বিষয়টি বৈশ্বিক ব্যর্থতা: ডব্লিউএইচওর প্রধান

আন্তর্জাতিক

বিশ্বের দরিদ্র দেশগুলো করোনাভাইরাসের টিকা নিয়ে সংকটে পড়েছে। এসব দেশে ঝুঁকিপূর্ণ জনগোষ্ঠী টিকা পাচ্ছে না। আর অন্যদিকে ধনী দেশগুলোতে উচ্চ ঝুঁকিতে না থাকা নাগরিকদের টিকা দেওয়া হচ্ছে। তাছাড়া মজুদ করছে কোটি কোটি ডোজ। এই ঘটনাকে বৈশ্বিক ব্যর্থতা হিসেবে অভিহিত করেছেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) প্রধান টেড্রোস আধানোম গেব্রেয়াসুস।

ডব্লিউএইচওর প্রধান জানান, আফ্রিকায় গত সপ্তাহে আগের সপ্তাহের তুলনায় করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ও মৃত্যু ৪০ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। সবচেয়ে বিপজ্জনক হলো, করোনাভাইরাসের ডেলটা ধরনের সংক্রমণ বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়েছে। বিশ্ব ব্যর্থ হয়ে যাচ্ছে। বিশ্ব সম্প্রদায় ব্যর্থ হয়ে যাচ্ছে।

স্বল্পআয়ের দেশগুলোতে টিকা সরবরাহ করতে অনিচ্ছুক দেশগুলোকে কঠোর শাস্তির আওতায় আনার দাবি তোলেন টেড্রোস। এসব দেশগুলোর যুক্তি ছিল, আফ্রিকার দেশগুলো সঠিকভাবে টিকা কর্মসূচি পরিচালনা করতে পারবে না। তবে এসব দেশের তিনি নাম উল্লেখ করেননি। তিনি পরিস্থিতিকে এইডস রোগের প্রাদুর্ভাবের কারণে সৃষ্ট সংকটের সঙ্গে তুলনা করেন।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান এ প্রসঙ্গে বলেছেন, ‘আমি মনে করি এ ধরনের ভাবনা অতীতের জন্য প্রযোজ্য। দরিদ্র দেশগুলোতে এখন প্রধান সমস্যা হলো টিকার সংকট। দরিদ্র দেশগুলোর এখন টিকা প্রয়োজন।’

তেদরোস আরও বলেন, ‘ধনী দেশের সঙ্গে দরিদ্র দেশের পার্থক্য হলো টিকা থাকা অথবা না থাকা। টিকার এই বৈষম্য বৈশ্বিক অন্যায়, অবিচার ও অসমতাকে পুরোপুরি প্রকাশিত করেছে। আমাদের পরিস্থিতির সম্মুখীন হতে হবে।’

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য