biddut

সৈয়দপুরে বজ্র্যপাতে এক শিশু নিহত, অপরজন আহত

রংপুর

মোঃ জাকির হোসেন, সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধিঃ বাড়ির পাশের খোলা মাঠে সদ্যকাটা ধানক্ষেতে জমে থাকা পানিতে মাছ ধরতে গিয়ে বজ্র্যপাতে দুই শিশুর একজন নিহত ও অপরজন আহত হয়ে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে। হাসপাতালের বিছানায় ছটফট করছে শারীরিক যন্ত্রনায়। ২৬ জুন শনিবার দুপুরবেলা এমন ঘটনা ঘটেছে নীলফামারীর সৈয়দপুর উপজেলার কাশিরাম বেলপুকুর ইউনিয়নের সিপাইগঞ্জ বাঁশতলীপাড়ায়।

নিহত শিশুর নাম তৌফিকুল হাসান (১২)। সে সৈয়দপুর ডাকঘরের পিয়ন ও বাঁশতলীপাড়ার বাসিন্দা আব্দুস সোবহানের ছেলে এবং সিপাইগঞ্জ শিশু নিকেতনের ৫ম শ্রেনীর ছাত্র। সে এক বোন দুই ভাইয়ের মধ্যে সবার ছোট। অন্যদিকে আহত শিশুর নাম সুজাত (৭)। সে একই পাড়ার সবজি ব্যবসায়ী মোকছেদ আলীর ছেলে।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, শনিবার দুপুর ১২ টার দিকে তৌফিকুল ও সুজাত বাড়ির অনতিদূরে পরিত্যক্ত ধানের ক্ষেতে জমে থাকা পানি মাটি দিয়ে বাধ দিয়ে সেচে মাছ মারছিল। এমন সময় বৃষ্টি শুরু হয় এবং বিকট শব্দে বজ্র্যপাত হয়। এতে বজ্রের আঘাতে তারা দুইজনই গুরুতরভাবে আহত হয়।

দূর থেকে লোকজন দেখে বিষয়টা আঁচ করতে পেয়ে এগিয়ে যায়। তারা দেখতে পায় তৌফিকুল নিস্তেজ পড়ে আছে এবং সুজাত যন্ত্রনায় কাতরাচ্ছে। দ্রুত দুজনকে উদ্ধার করে বাড়িতে নেয়া হলে স্থানীয় সিপাইগঞ্জ বাজারের গ্রাম্য চিকিৎসক তৌফিকুল কে মৃত ঘোষনা করে এবং সুজাতকে হাসপাতালে নেয়ার পরামর্শ দেয়। এতে তাদের দুইজনকেই ভ্যানযোগে সৈয়দপুর ১০০ শয্যা হাসপাতালে নেয়া হয়।

হাসপাতালের দায়িত্বরত চিকিৎসক পর্যবেক্ষন করে জানান, তৌফিকুল ঘটনাস্থলেই মারা গেছে। গুরুতর আহত সুজাতকে হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা দেয়া হয়। কিন্তু তার অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। সেখানে সে হাসপাতালের বিছানায় যন্ত্রনায় ছটফট করে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য