Birgonj Hospital

দালালদের দৌরাত্ম্যে বীরগঞ্জ হাসপাতালে নরমাল ডেলিভারি বন্ধের উপক্রম

দিনাজপুর

দিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুরের বীরগঞ্জ উপজেলার অলিগলিতে ব্যাঙের ছাতার মতো বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিক হওয়ায় দালালচক্রের কারণে উপজেলার ৫০ শয্যা বিশিষ্ট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নরমাল ডেলিভারি রোগী আসা আগের চেয়ে কমতে শুরু করেছে।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স একটি ডেলিভারি রোগী চিকিৎসা সেবা নিতে আসার পথে ওই রোগীর আত্মীয় সেজে মিথ্যা তথ্য দিয়ে ভুল বুঝিয়ে দালালরা রোগীকে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে বিভিন্ন নামে বে নামের ক্লিনিকে। বর্তমানে এই দালালদের দৌরাত্ম্যে হাসপাতালে নরমাল ডেলিভারি বন্ধের উপক্রম হয়ে পড়েছে।

জানা গেছে,২০১৭ সালে একদিনে ২৭টি নরমাল ডেলিভারির মাধ্যমে সন্তান প্রসবে সফলতা ও ব্যাপক সুনাম অর্জন করে দিনাজপুর জেলায় দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছিল বীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স। কিন্তু শুধুমাত্র দালালদের দৌরাত্ম্যের কারণে চিকিৎসকদের এই মহতি উদ্যোগ ভেস্তে যেতে বসেছে।

সিজারের নামে বাণিজ্য, দালাল চক্র এবং অদক্ষ ধাত্রীর হাত থেকে প্রসুতি মা- বোনদের রক্ষায় এবং নিরাপদ নরমাল ডেলিভারি করাতে প্রশাসনের কঠোর পদক্ষেপ কামনা করেছে এলাকাবাসী। এব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা: আফরোজ সুলতানা লুনা বলেন, এ হাসপাতালে ডেলিভারি নিরাপদ করতে পাঁচজন দক্ষ মিডওয়েফ রয়েছে।

সরকারি হাসপাতালে নিরাপদ ডেলিভারি করানো হলে মৃত্যুর ঝুঁকি থাকে না। সিজারের মাধ্যমে সন্তান প্রসবে শিশুসহ প্রসূতির মৃত্যুর ঝুঁকি থাকতে পারে। একজন প্রসূতি একাধিকবার সিজারের মাধ্যমে সন্তান প্রসব করলে তার মৃত্যুর ঝুঁকির পাশাপাশি শারীরিক জটিলতা দেখা দেওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকে। অথচ নরমাল ডেলিভারিতে মানুষের অর্থ সাশ্রয় হয়। পাশাপাশি স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত ও নিরাপদ হয়।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য