suronjitভারতের নতুন সরকারের সঙ্গে সম্পর্ক জোরদার করতে বাংলাদেশ সরকারকে পরামর্শ দিয়েছেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে বঙ্গবন্ধু একাডেমির এক আলোচনা সভায় তিনি এ পরামর্শ দেন।

সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত বলেন, হাবিল-কাবিল দিয়ে কিছু হবে না। কূটনৈতিক প্রচেষ্টা দৃঢ় ও স্পষ্ট করতে হবে। সেখানে সবার গণতান্ত্রিক প্রতিনিধিত্বমূলক অবস্থান রাখতে হবে। তিনি ভারতের সঙ্গে সম্পর্ক ও অভ্যন্তরীণ সংকট নিরসনে দু-দলকেই ঐক্যমতভাবে কাজ করার আহ্বান জানান।

সুরঞ্জিত বলেন, বিএনপি জন্ম থেকেই ভারতবিরোধী রাজনীতি করে আসছে। এখন সাম্প্রদায়িক মোদিকে অভিনন্দন জানিয়েছে। সম্পর্ক বাড়ানোর চেষ্টা করছে। এসব করার আগে তাদের জনসম্মুখে ঘোষণা দিতে হবে, আমরা আর ভারতবিরোধী নীতিতে নেই। এরপর তাদের অন্য কথা।

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুলের সমালোচনা করে সুরঞ্জিত বলেন, তাকে নিয়ে আমি কিছু বলি না। কিন্তু ইদানীং মনে হচ্ছে ফখরুল সাহেবের ভাষার প্রতি সংযমের অভাব দেখা দিয়েছে। তাদের জ্ঞাতার্থে বলতে চাই, এই সরকার অবৈধ না। গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত। বড় ধরনের পরিবর্তন না হলে আগামী নির্বাচনও সংবিধান অনুযায়ী শেখ হাসিনার অধীনেই হবে।

তিনি আরো বলেন, সংখ্যাগরিষ্ঠ আসন নিয়ে মোদি সরকার গঠন করেছে। ভারত গণতন্ত্রে বিশ্বাস করে। তাই দেরিতে হলেও তিস্তা পানি চুক্তিসহ বাংলাদেশের সব দাবি কূটনৈতিকভাবে সম্পন্ন করবে।

সংগঠনের সিনিয়র সহ-সভাপতি শেখ ইশতিয়াক হোসেনের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের উপ-কমিটির সহ-সম্পাদক এডভোকেট আসাদুজ্জামান দুর্জয়, সাম্যবাদি দলের নেতা হারুন চৌধুরী প্রমুখ।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য