পরীমণিকে যেভাবে দেখা গেলো বোট ক্লাবের সিসি ক্যামেরায়

পরীমণিকে যেভাবে দেখা গেলো বোট ক্লাবের সিসি ক্যামেরায়

জাতীয়

রাজধানীর মিরপুর বেরিবাঁধ রোড সংলগ্ন বিরুলিয়ায় তুরাগ নদীর তীরে গড়ে ওঠা ‘ঢাকা বোট ক্লাব’ থেকে সিসি ক্যামেরার ভিডিও ফুটেজ জব্দ করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

ডিবি সূত্র জানায়, ঘটনার দিন গত ৮ জুন দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে বিরুলিয়ার ঢাকা বোট ক্লাবে পরীমণির গাড়ি থেকে নামা, রিসিপশন দিয়ে প্রবেশ ও অচেতন হয়ে বের হওয়ার ৩টি সিসি ক্যামেরা ফুটেজ উদ্ধার করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

ফুটেজগুলোর মধ্যে ক্লাবের বাইরের সিসিটিভি ফুটেজে দেখা গেছে, রাত ১২টা ২২ মিনিটে ঢাকা বোট ক্লাবের সামনে একটি কালো গাড়ি থামে। গাড়িটি ছিল বোট ক্লাবের সদস্য তুহিন সিদ্দিকী অমি’র। গাড়ির সামনের দরজা থেকে নামেন চিত্রনায়িকা পরীমণি। পেছনের ডান পাশের দরজা দিয়ে বের হন গ্রেফতার হওয়া অমি, পরীমণির কস্টিউম ডিজাইনার জিমি ও তার বোন বনি। ক্লাবে ঢোকার সময় পরীমণি কালো টপস, জিন্সের প্যান্ট পরা ছিলেন।

বনি লাল টপস, সঙ্গে জিন্সের প্যান্ট এবং জিমি কালো হাতাকাটা গেঞ্জি ও হাফ প্যান্ট পরা ছিলেন। অমির পরনে ছিল সাদা গেঞ্জি ও গ্যাবার্ডিনের প্যান্ট। শুধুমাত্র অমি ছাড়া বাকি সবাই মাস্ক পরে ক্লাবে প্রবেশ করেন। রিসিপশনের ক্যামেরায় তাদের চারজনকে একসঙ্গে বারে ঢুকতে দেখা যায়। তখন রিসিপশন ডেস্কে ছিলেন দুইজন এবং ডেস্কের পাশে দাঁড়িয়ে ছিলেন আরো একজন স্টাফ।

অথচ রাত ১১টার মধ্যে ক্লাব ও বার বন্ধ হয়ে যাওয়ার কথা ছিলো। ড্রেস কোড অনুযায়ী জিমিকে হাফ প্যান্ট পড়ে ক্লাবের ভেতরে প্রবেশ করতে দেয়ারও কথা না।

রাত ২টায় রিসিপশনের সিসিটিভি ফুটেজে দেখা যায়, পরীমণিকে অচেতন অবস্থায় কোলে নিয়ে বের হন জিমি ও একজন সিকিউরিটি গার্ড। পেছনে দৌড়াচ্ছিলেন তার বোন বনি। তাদের পেছনে স্বাভাবিকভাবে হেঁটে যাচ্ছিলেন অমি। গাড়িতে ওঠার সময় আঙুল তুলে সবাইকে ধমকের ইঙ্গিত দিতে দেখা গেছে অমিকে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য