আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা থেকেঃ গাইবান্ধা গোবিন্দগঞ্জে বালুয়া বাজারে একদল সন্ত্রাসী চাঁদা না পেয়ে মানবাধিকারকর্মী ও কথিত জীনের বাদশা প্রতিরোধ কমিটি চক্রের প্রতিবাদকারী অন্যতম নেতা ওয়াহেদুননবী মিলনের উপর সন্ত্রাসী হামলা, ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ভাংচুর ও লুটপাট চালানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে।  জানা গেছে, উপজেলার তালুকানুপুর ইউনিয়নের তাজপুর গ্রামের কমরেড তাজুল ইসলামের পুত্র মানবাধিকার কর্মী ও জীনের বাদশা প্রতিরোধ কমিটির অন্যতম নেতা ওয়াহেদুননবী মিলন বালুয়া বাজারে ইলেকট্রিক ও মোবাইল ফ্রেক্সিলোডের ব্যবসা চালিয়ে আসছিল। কিন্তু স্থানীয় সন্ত্রাসী চাঁদাবাজরা দরবস্ত ইউনিয়নের সাবগাছি হাতিয়াদহ গ্রামের মৃত- হযরত আলীর পুত্র আজিজুর রহমান বকুল, এরশাদুল ও ছামছুল বেশ কিছু দিন ধরে তার কাছে মোটা অংকের চাঁদা দাবি করে আসছিল। মিলন চাঁদার টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানান। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে উক্ত সন্ত্রাসী চাঁদাবাজদের নেতৃত্বে ১৫/২০ জন চাঁদাবাজ সন্ত্রাসীরা গতকাল সোমবার দুপুর ১ টায় ওয়াহেদুননবী ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে এসে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে তাকে মারপিট শুরু করে। এতে সে গুরুতর আহত হয়। এ সময় উক্ত চাঁদাবাজ সন্ত্রাসীরা তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে থাকা টাকা পয়সা ছিনিয়ে নেয় এবং দোকানপাট ভাংচুর ও লুটপাট চালায়। পরে গুরুতর আহত মিলনকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে গোবিন্দগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। এ ঘটনায় গোবিন্দগঞ্জ থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য