জালিয়াতি মামলায় গান্ধীর নাতনীর ৭ বছরের জেল

জালিয়াতি মামলায় গান্ধীর নাতনীর ৭ বছরের জেল

আন্তর্জাতিক

ভারতের জাতির জনক ও অহিংস আন্দোলনের রূপকার মহাত্মা গান্ধীর নাতনীকে সাত বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন দক্ষিণ আফ্রিকার একটি আদালত। তার নাম আশিস লতা রামগোবিন। আর্থিক প্রতারণা ও জালিয়াতির অভিযোগে ৫৬ বছর বয়সী এই নারীর বিরুদ্ধে গতকাল সোমবার (৭ জুন) কারাদণ্ডের রায় ঘোষণা করেছেন আদালত। এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস।

প্রতিবেদনে বলা হয়, দক্ষিণ আফ্রিকায় এস আর মহারাজ নামে এক ব্যবসায়ীর কাছ থেকে আশিস লতা রামগোবিন ৬০ লাখ র‌্যান্ড (দক্ষিণ আফ্রিকান মুদ্রা) নিয়েছিলেন। ভারত থেকে দেশটিতে পণ্য রফতানির নামে ওই টাকা নিয়েছিলেন তিনি। এছাড়া ব্যবসার লভ্যাংশ দেওয়ারও প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন ওই ব্যবসায়ীকে।

পরে চুক্তি অনুযায়ী কোনো পণ্য রফতানি করা হয়নি বলে অভিযোগ ওঠে। একপর্যায়ে আদালতে মামলা হলে শুনানির পর সোমবার দক্ষিণ আফ্রিকার ডারবান শহরের স্পেশালাইজড কমার্শিয়াল ক্রাইম কোর্ট আশিস লতা রামগোবিনকে দোষী সাব্যস্ত করেন এবং ৭ বছরের কারাদণ্ড দেন।

রায়ে দক্ষিণ আফ্রিকার ন্যাশনাল প্রসিকিউটিং অথরিটি (এনপিএ) সোমবার আদালতে জানিয়েছে, ২০১৫ সালে ব্যবসায়ী এস আর মহারাজের সঙ্গে সাক্ষাৎ হয় লতার। মহারাজের সংস্থা ভারত থেকে কাপড় আমদানি করে এবং জুতা তৈরি করে তা বিভিন্ন দেশে রফতানি করা হয়। লতা ওই ব্যবসায়ীকে তার রফতানি সংক্রান্ত কাজের কথা বলে প্রতারণার ফাঁদে ফেলেন এবং ওই অর্থ হাতিয়ে নেন।

উল্লেখ্য, মহাত্মা গান্ধীর নাতনী লতা রামগোবিন মানবাধিকার কর্মী এলা গান্ধী ও পরলোকগত মেওয়া রামগোবিন্দের মেয়ে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য