দিনাজপুরে করোনায় আরও ২ জনের মৃত্যু, সন্ধ্যার বৈঠকে আসতে পারে লকডাউনের সিদ্ধান্ত

দিনাজপুর

দিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুরে গত ২৪ ঘন্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে আরও ২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় মোট মৃত্যুর সংখ্যা দাড়ালো ১৩৬ জনে। মৃত্যুর তালিকায় ২ জন যুক্ত হওয়ায় চলতি মাসের ৬ দিনে ৮ জনের মৃত্যু হলো। আর এই ক’দিনে সনাক্তের দিক দিয়ে জেলায় মৃত্যুহার ৪.৪০ শতাংশ। গত মাসে সনাক্তের দিক দিয়ে মৃত্যুহার ছিল ৪.৩৬ শতাংশ।

করোনার সংক্রামণ উর্দ্ধগতি হওয়ায় স্বাস্থ্যবিধি মানাতে কঠোর সিদ্ধান্ত এবং একটি/দুটি উপজেলাকে কঠোর লকডাউনের আওতায় আনার সিদ্ধান্তের দিকে যাওয়ার কথা বলছে প্রশাসন। সন্ধ্যার পরপরই এমন সিন্ধান্ত আসতে পারে বলে জানিয়েছে সিভিল সার্জন।

দিনাজপুর সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, গত ২৪ ঘন্টায় দিনাজপুরে ১৬৪টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়, যার মধ্যে করোনা সনাক্ত হয় ৪০ জনের। সনাক্তের হার ২৪.৩৯ শতাংশ। গত ২৪ ঘন্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে আরও ২ জনের মৃত্যু হয়েছে। নিহতরা হলেন- সদরের রিজিয়া বেগম (৭০) ও বিরামপুরের ইসমাইল হোসেন (৭০)।

হিসেব বলছে, চলতি মাসের গত ৬ দিনে দিনাজপুরে করোনায় আক্রান্ত হয়ে ৮ জনের মৃত্যু হলো। এই ৬ দিনে জেলায় মোট করোনায় আক্রান্ত হয়েছে ১৮২ জন। সনাক্তের বিবেচনায় মৃত্যুহার ৪.৪০ শতাংশ। গত মাসেও এই জেলায় সনাক্তের বিবেচনায় মৃত্যুহার ছিল ৪.৩৬ শতাংশ। অর্থাৎ এই জেলায় মৃত্যুহার দিন দিন বাড়ছে।

এখন পর্যন্ত জেলায় যে মোট ১৩৬ জন মৃত্যু হয়েছে তার মধ্যে ৬৫ জনই সদরের। অর্থাৎ জেলার ১৩টি উপজেলার মধ্যে এই উপজেলায় মৃত্যুহার ৪৭.৮০ শতাংশ। আর মোট ৫৯৮৮ জন আক্রান্তের মধ্যে ৩৩৮৫ জনই সদর উপজেলার। সেই হিসেবে এই উপজেলার আক্রান্তের হার ৫৬.৫৩ শতাংশ। দিনাজপুরে বর্তমানে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন ৩৯ জন রোগী আর হোম আইসোলেশনে রয়েছেন ২৮৫ জন।

দিনাজপুর করোনা প্রতিরোধ কমিটির সদস্য সচিব ও জেলা সিভিল সার্জন ডা. আব্দুল কুদ্দুছ বলেন, এ ব্যাপারে আমরা করোনা প্রতিরোধ কমিটির জরুরী বৈঠক ডাকা হয়েছে। সন্ধ্যা ৭ টার দিকে এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে এবং সেখানেই এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য