৫দিন বন্ধ থাকার পর পঞ্চগড়ের বাংলাবান্ধা স্থলবন্দরে আমদানি রপ্তানি কাযক্রম শুরু

৫দিন বন্ধ থাকার পর পঞ্চগড়ের বাংলাবান্ধা স্থলবন্দরে আমদানি রপ্তানি কাযক্রম শুরু

রংপুর বিভাগ

পঞ্চগড় প্রতিনিধিঃ করোনার ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট ও ফাঙ্গাস সংক্রমণ রোধে পাঁচ দিন বন্ধ ছিল দেশের একমাত্র চর্তুদেশীয় বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর দিয়ে আমদানি রপ্তানি কার্যক্রম। কিন্তু সীমান্ত জেলাগুলোতে এই ভ্যারিয়েন্টের ঝুঁকি অব্যাহত থাকলেও শনিবার দুপুর থেকে ভারত, নেপাল ও ভুটান থেকে ভুট্টাসহ বিভিন্ন কৃষি পণ্য আমদানি করা হয়েছে এই স্থলবন্দর দিয়ে। তবে এদিন কোন পাথর আমদানি করা হয়নি। পঞ্চগড় আমদানি রপ্তানিকারক অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মেহেদী হাসান খান বাবলা স্থলবন্দর চালু হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

ভারতে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি ও নতুন করে ভ্যারিয়েন্ট ও ফাঙ্গাস সংক্রমণ এড়াতে স্থানীয়দের চাপে মুখে পড়ে ৩১ মে বন্দরের আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা করা হয়। ৪ জুন থেকে স্থলবন্দটি চালু হওয়ার কথা থাকলেও গতকাল শুক্রবার সপ্তাহিক ছুটির দিন থাকায় গতকাল শনিবার থেকে বন্দরের আমদানী রপ্তানি কার্যক্রম চালু হয়।

শনিবার দুপুরে ভারত, নেপাল ও ভুটান থেকে ভুট্টাসহ বিভিন্ন কৃষি পণ্য নিয়ে কিছু ট্রাক ভারতের ফুলবাড়ি হয়ে বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর হয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে। এ বন্দরে পাথরের আমদানি বেশী হলেও এদিন পাথরের কোন ট্রাক বন্দর দিয়ে দেশে প্রবেশ করতে দেখা যায়নি।

পঞ্চগড় আমদানি রপ্তানিকারক অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মেহেদী হাসান খান বাবলা বলেন, গত ৪ জুন আমাদের বন্দর খোলার কথা ছিল। গতকাল শুক্রবার সাপ্তাহিক ছুটির কারনে স্থলবন্দর বন্ধ ছিল। শনিবার দুপুর থেকে অন্যান্য পণ্য আমদানি রপ্তানী শুরু হয়েছে। পাথরের গাড়ি টেন্ডার করা হয়নি এ কারণে পাথর আমদানি করা যাবে না। আজ রোববার থেকে স্থলবন্দর পুরোদমে আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম চালু হবে বলে তিনি জানান।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য